|

অপেক্ষা যেনো শেষ হচ্ছেনা মাহির শ্বশুরবাড়ির

এবারের কোরবানীর ঈঁদে মুঁক্তি পেতে যাচ্ছে মাহিয়া মাহির ‘জান্নাত’ ছবিটি। প্রায় অনেক মাস বিরতির পর বাংলাদেশের পেক্ষাগৃহে মুক্তি পেতে যাচ্ছে ছবিটি।তাই ছবিটি নিয়েও এই নায়িকার আনন্দের শেষ নেই। ইতিমধ্যেই ছবিটির প্রচারনা শুরু হয়ে গেছে। এবং ছবিটি প্রচারনার জন্য সংবাদ সম্মেলনও করা হয়। সেখানে পরিচালক থেকে শুরু করে নায়ক-নায়িকাসহ আরো অনেক কলাকৈশলী উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে ছবিটির নায়িকা মাহিয়া মাহি বলেন, ‘জান্নাত’ ছবিটি দেখার জন্য অধীর অপেঁক্ষায় রয়েছেন তাঁর শ্বশুরবাড়ির লোকজন। ছবিটি দেখার জন্য অপেঁক্ষা যেনো শেষ হচ্ছেনা তাঁদের। মাহি আরো বলেন, ‘জান্নাত’ এমন একটি ছবি, যা তার শ্বশুরবাড়ির সবাইকে দেখাতে পারবেন। এটাই তার জীবনের সবচেয়ে বড় খুশির খবর। এর চেয়ে খুশির খবর তাঁর আর কিছুই হতে পারেনা।

মাহিয়া মাহির চলচ্চিএে পথচলা শুরু হয় ২০১০ সাল থেকে। প্রথম ছবি নিয়ে বড় পর্দায় আসেন ২০১২ সালে। ছবির নাম ‘ভালোবাসার রং’। এই ছবিটি ব্যবসায়িকভাবে হিট হয় এবং দর্শকদের মন জয় করতে সক্ষম হয়। তাঁরপর থেকেই একের পর এক সিনেমা করতে থাকেন জাজ মাল্টিমিডিয়া প্রতিষ্ঠানে। জাজ মাল্টিমিডিয়ায় যখন শুরু থেকে একটানা কয়েকটি ছবিতে কাজ করেছেন,সেই ছবিগুলোই দর্শকদের কাছে গ্রহনযোগ্যতা পেয়েছিল। কিন্তু যখনই জাজের ঘর থেকে বিদায় নিলো,তখন থেকেই এই নায়িকা হতে থাকেন সমালোচিত। কারন,জাজের ছবিগুলোই ছিলো মানসম্পূর্ণ। আর জাজের বাইরে যেসকল ছবিতে অভিনয় করেছেন সেইসব ছবিগুলো ছিলো নিম্নমানের। সেইজন্যই দর্শকরা এই ছবিগুলো বয়কট করেছিলো এবং ব্যবসায়িকভাবে সবগুলো ছবিই ফ্লপ হয়েছিলো শুধুমাএ ‘ঢাকা এ্যাটাক’ বাদে।

মাহিয়া মাহি ‘জান্নাত’ ছবিটির জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন।এবং দর্শকদেরকেও ছবিটি হলে গিয়ে দেখার জন্য বলেছেন। ‘জান্নাত’ ছবিতে মাহির বিপরীতে অভিনয় করেছেন সায়মন সাদিক। এর আগে এই জুঁটির ‘পোরামন’ নামে একটি ছবি মুক্তি পেয়েছিলো ২০১৩ সালে। জান্নাত তাঁদের দ্বিতীয় ছবি।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.