|

আধুনিক পরিচালকের অভাবে ভুগছেন—আরেফিন শুভ

কথায় আছে, দিন যত যায়—মানুষের চিন্তাভাবনাও পাল্টায়! কিন্তু, কিছু কিছু মানুষের চিন্তাভাবনা এতটাই লোভ পায় যে, পরবর্তীতে সেটা আর কখনও পাল্টায় না। পুরোনো অভ্যাসটাকে নিয়েই পড়ে থাকেন তারা। ঠিক এমনি পুরোনো চিন্তাভাবনা নিয়েই পড়ে রয়েছেন বাংলা ফিল্মের পরিচালকরা। আধুনিক কালে এখনো নির্মাণ করছেন আদিম কালের পুরোনো বাংলা সিনেমার মতো বর্তমান সিনেমা। সেই পরিচালকরা হয়তো ভাবেননা, দর্শকদের চিন্তাভাবনা ও রুচি বদলেছে, বদলেছে যুগও। দর্শকরা চায় বর্তমান যুগের সাথে তাল মিলিয়ে ডিজিটাল সিনেমা নির্মাণ হোক। যেই গল্পে থাকবে শুধু নতুনত্ব আর নতুনত্ব।

কিন্তু, পরিচালকরা দর্শকের চিন্তাভাবনা ও রুচির কথা না ভেবেই তৈরি করছেন গতানুগতিক বস্তাপচা সিনেমা। ফলস্বরূপ পাচ্ছেন, যেই আলু-সেই কদু। মানে যেমন কাজ তেমনই তার ফল। ভালো পরিচালকের অভাবেও ভুগছেন সম্ভাবনাময় নায়ক-নায়িকারা। তারাই ঠিকমতো ব্যবহার করতে পাচ্ছেননা বলেই ওই সকল  নায়ক-নায়িকারা হতে পারেননা অভিনেতা ও অভিনেত্রী।

বর্তমান পরিচালকদেরকে উদ্দেশ্য করে চিএনায়ক আরেফিন শুভ বলেন, ইন্ডাস্ট্রিতে ভালো পরিচালকের সংকট তৈরী হচ্ছে। আমাদের আধুনিক পরিচালক দরকার। বর্তমান সময়ের দর্শকদের রুচি ধরতে পারেন এমন পরিচালক চলচ্চিত্রের জন্য খুব বেশি প্রয়োজন।

দীর্ঘদিন ভালো পরিচালক ও ভালো গল্পের অভাবে ভুগছিলেন আরেফিন শুভ। তাই তিনি ফিল্ম থেকেও কিছুটা দূরে ছিলেন। তার এই দূরে থাকার কারনে অনেকে হয়তো ভেবেছিলেন তাকে আর ফিল্মে দেখা যাবেনা। কিন্তু না, দর্শকের সেই ভাবনাকে চাঁপা মাঁটি দিয়ে ‘সাপলুডু’ নামের এই ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন তিনি। অ্যাকশন থ্রিলার এই ছবিটিতে ও পরিচালকের সাথে ব্যাটে—বলে মিলে যাওয়ায় ছবিটি করার ইচ্ছে জেগেছে তার। মাঝে মনের মতো পরিচালক ও ভালো গল্প না পাওয়ায় বিভিন্ন স্টেজ শো করে অবসর সময় কাটিয়েছেন তিনি।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.