উঁকি দেওয়া ‘অভিযাত্রিক’ অপুর সংসারের অন্দরে…


বিভূতিভূষণের অপু আমাদের কাছে ধরা দিয়েছিল সত্যজিত্‍ রায়ের ক্যামেরা-কল্পনায়। আমাদের অজান্তেই প্রাপ্ত বয়স্ক অপু আর সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় যেন মিলেমিশে এক হয়ে গিয়েছিল। অপু-কে নিয়ে বাঙালি বড়ই আবেগতাড়িত। কোথাও না কোথাও অপুর সঙ্গে নিজেদের মিল খুঁজে পায় বাঙালি। অপু যেন ঘরের ছেলে হয়েও দিগন্তবিস্তৃত ছিল। অপু-কে ঘরের গন্ডিতে আটকে রাখা যায় না। তার মনটা তো সেই ছোট থেকে ছুটে চলে যায় কাশবন পেরিয়ে রেলগাড়ির ধোঁয়ার পিছু পিছু। সেই অপুর নস্টালজিয়া এবার ধরা পড়ল শুভ্রজিত্‍ মিত্রর ক্যামেরায়। প্রধান ভূমিকায় অর্জুন চক্রবর্তী এবং দীতিপ্রিয়া রায়। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে অভিযাত্রিক- The Wanderlust of Apu-র ট্রেলার। আপনাদের জন্যে রইল ছবির কিছু বিশেষ মুহূর্তের স্থির ছবি…

অপু আসল ফিরে

প্রখ্যাত সাহিত্যিক বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের অমর সৃষ্টি অপরাজিত উপন্যাসের শেষাংশের প্রেক্ষাপটে তৈরি শুভ্রজিত্‍ মিত্রর এই ছবি। প্রযোজনা করেছে গৌরাঙ্গ ফিল্মস। সহ-প্রযোজক ভান্ডারকর এন্টারটেনমেন্ট। অ্যাসোসিয়েট প্রোডিউসার এনসিকেএস এক্সপ্লোরেশনস। অপূর্ব রায় ওরফে অপুর চরিত্রকে এবার বড় পর্দায় ফুটিয়ে তুলেছেন অভিনেতা অর্জুন চক্রবর্তী। সাদা কালোয় ফের একবার জীবন্ত হয়ে উঠল বাঙালির নস্টালজিয়া। আরও একবার অপুর সঙ্গে পথ চলা শুরু।

কাজল আর অপুর নিশ্চিন্দিপুর পাড়ি…

ফের একবার সাদা কালোয় বাবা ছেলে… অপু ও কাজল। ফের একবার বাবার হাত ধরে ঘরের নিশ্চিন্ত জীবন ছেড়ে জীবনের পথে পা বাড়ানো ছোট্ট কাজলের। অভিযাত্রিক ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন পরিচালক শুভ্রজিত্‌ মিত্র নিজেই। অরিজিনাল মিউজিক তৈরি করেছেন প্রখ্যাত সঙ্গীত পরিচালক বিক্রম ঘোষ। পন্ডিত রবিশঙ্করের করা পথের পাঁচালী থিমটি রিক্রিয়েট করেছেন তাঁর যোগ্য শিষ্যা ও কন্যা অনুষ্কা শঙ্কর।

অপর্নার কাছে চির ঋণী…

১৯৫৯ সালে মুক্তি পেয়েছিল সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং শর্মিলা ঠাকুর অভিনীত সত্যজিত্‌ রায় পরিচালিত অপুর সংসার। সদ্য যৌবনে পা দেওয়া অপুর স্ত্রী অপর্ণার দু’চোখ ভরা স্বপ্ন। তবে এবার সেই চরিত্রে অভিনয় করেছেন রানি রাসমণি খ্যাত অভিনেত্রী দীতিপ্রিয়া রায়। ছেলে কাজলকে পৃথিবীতে আনতে গিয়ে অপর্ণা চির বিদায় নিলেও অপুর মনে আজও তার আসন বিন্দুমাত্র টলেনি।

অজানার খোঁজে…

ঘরের গন্ডি আটকে রাখতে কোনওদিনই পারেনি অপুকে। তার মন বার বার ছুটে গিয়েছে অজানার উদ্দেশে। অপর্ণার ফাঁকি দিয়ে চলে যাওয়ায় সেই মন হয়ে উঠেছে আরও বাউন্ডুলে। এবার তার সামনে হাতছানি বিশ্বকে দেখার। সঙ্গী হয় ছেলে কাজল। অর্জুন ও দীতিপ্রিয়া ছাড়াও এই ছবিতে দেখা যাবে সব্যসাচী চক্রবর্তী, অর্পিতা চট্টোপাধ্যায়, শ্রীলেখা মিত্র, আয়ুষ্মান মুখোপাধ্যায়, সোহাগ সেন, তনুশ্রী শঙ্কর, বরুণ চন্দ, বিশ্বনাথ বসু, রূপাঞ্জনা মিত্র।

সুরের পথে…

অভিযাত্রিক ছবিতে এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে গানের। বিক্রম ঘোষের সুরে গান গেয়েছেন সাহেব চট্টোপাধ্যায় এবং উজ্জয়ীনি মুখোপাধ্যায়। সাউন্ড ডিজাইনের দায়িত্বে রয়েছেন তীর্থঙ্কর মজুমদার। ছবির লুক ডিজাইন করেছেন বিখ্যাত মেকআপ শিল্পী অনিরুদ্ধ চাকলাদার। আর্ট ডিরেকশনের দায়িত্বে রয়েছেন গৌতম বসু। কস্টিউম ডিজাইন করেছেন অগ্নিমিত্রা পল। সিনেম্যাটোগ্রাফার সুপ্রতিম ভোল। ট্রেলার মুক্তি পেলেও এই ছবির মুক্তির দিন ঘোষণা করা হয়নি এখনও।



Continue Reading

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.