|

বাইক চালাচ্ছিলেন পূর্ণিমা, পেছনে ছিলেন ফেরদৌস, তারপর এক্সিডেন্ট

চিত্রনায়ক ফেরদৌস আর চিত্রনায়িকা পূর্ণিমা মোটরসাইকেলে গুরুতর দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন। আজ রোববার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে নোয়াখালীর চরমণ্ডলে।

সেখানে ‘গাঙচিল’ ছবির শুটিং করছেন তাঁরা। ছবিটির পরিচালক নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূল বলেন, ‘আজ সকালে মোটরসাইকেলের একটি দৃশ্যের শুটিং হচ্ছিল। গতকাল শনিবার এই দৃশ্যের শুটিং হয়েছে। কিছু কাজ বাকি ছিল। সেটাই আজ করা হয়। মোটরসাইকেল চালাচ্ছিলেন পূর্ণিমা। পেছনে বসে ছিলেন ফেরদৌস। কিছু বুঝে ওঠার আগেই রাস্তায় স্লিপ কেটে তাঁদের মোটরসাইকেল উল্টে যায়। ফেরদৌস আর পূর্ণিমা ছিটকে গিয়ে রাস্তার পাশে পড়ে যান। দুজন যথেষ্ট ব্যথা পেয়েছেন। দুজনেরই শরীরের কিছু স্থানে কেটে গেছে। সেখান থেকে রক্ত ঝরেছে। তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।’

আজ দুপুরে নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূলের সঙ্গে যখন কথা হয়, তখন ফেরদৌস আর পূর্ণিমাকে বসুরহাট সেন্ট্রাল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। তিনি আরও জানালেন, ঘটনার পর ফেরদৌস আর পূর্ণিমাকে বিশ্রামে রাখা হয়। কিন্তু ব্যথা বেড়ে যাওয়ায় তাঁদের হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে। এরপর কথা হয়েছে ফেরদৌসের সঙ্গেও। তিনি বলেন, ‘প্রচণ্ড ব্যথা পেয়েছি। পূর্ণিমাও। আমি ব্যথা পেয়েছি সোল্ডারে আর পূর্ণিমা পায়ে। দুজনেরই খুব ব্যথা হচ্ছে। পূর্ণিমার পা ফুলে গেছে। হাসপাতালে যাচ্ছি। দেখি ডাক্তার কী বলেন।’

৬ ফেব্রুয়ারি থেকে চরমণ্ডল আর চর এলাহিতে ‘গাঙচিল’ ছবির শুটিং করছেন ফেরদৌস আর পূর্ণিমা। গতকাল তাঁদের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন আনিসুর রহমান মিলন। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের উপন্যাস ‘গাঙচিল’ নিয়ে ছবিটি তৈরি করছেন নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূল।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.