কে কে-র দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার কি ভুয়ো? যাচাই না করেই শুভেচ্ছা মোদীর!


নিজস্ব প্রতিবেদন : ​দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার পেয়েছেন কে কে মেনন। ভারতীয় সিনেমায় অবদানের জন্যই দাদাসাহেব ফালকে পান কে কে। ওই খবর সামনে আসতেই নিজের সোশ্যাল হ্যান্ডেলে পুরস্কারের ছবি প্রকাশ করে ধন্যবাদ জানান কে কে মেনন। এরপরই কে কে মেননকে শুভেচ্ছা জানানো হয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দফতরের তরফে। আর এখান থেকেই শুরু হয় বিতর্ক।

ভারতীয় সিনেমায় অবদানের জন্য দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কারে সম্মানিত করা হয় তাবড় অভিনেতাদের। দাদাসাহেব ফালকে সম্মানের সঙ্গে দাদাসাহেব ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের বিস্তর ফারাক রয়েছে। দুই সম্মানকে একসঙ্গে কীভাবে গুলিয়ে ফেলা হল, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন অনেকে। কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের তরফে কে কে মেননকে দাদাসাহেব ফালকে দেওয়া হয়নি, তিনি দাদাসাহেব ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল নামে পৃথক সম্মান অর্জন করেন। তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের পুরস্কারের তালিকা খতিয়ে না দেখে কীভাবে প্রধানমন্ত্রীর দফতরের তরফে কে কে মেননকে শুভেচ্ছা জানানো হল, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন অনেকেই। যদিও কে কে মেননের তরফে এ বিষয়ে পালটা কোনও মন্তব্য করা হয়নি।

আরও পড়ুন : দাদাসাহেব ফালকে আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে সম্মানিত Kay Kay Menon

১৯৯৫ সালে ‘নাসিম’ নামে একটি ছবির মাধ্যমে বলিউডে পা রাখেন কে কে মেনন। বলিউডে পা রাখার কয়েক বছর পর ‘ভোপাল এক্সপ্রেসে’ অভিনয় করেন কে কে। ‘ভোপাল এক্সপ্রেসে’ মূল ভূমিকায় অভিনয়ের পর ‘ব্ল্যাক ফ্রাইডে’, ‘হাজারো খোয়াইশে অ্যায়সি’, ‘সরকার’, ‘লাইফ ইন আ মেট্রো’, ‘অঙ্কুর অরোরা মার্ডার কেস’, ‘হায়দর’, ‘স্টোনম্যান মাডার্স’-সহ একাধিক ছবিতে অভিনয় করেন কে কে মেনন। বলিউডের অন্যতম সেরা অভিনতাকে নিয়ে ইতিমধ্যেই বিতর্ক শুরু হয়েছে তাঁর দাদাসাহেব ফালকে সম্মান নিয়ে।





Continue Reading

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.