‘গায়ের রং কালো বলে মডেলিং-বিজ্ঞাপনের কাজ থেকে বাদ পড়েছি!’


হাইলাইটস

  • তারই সঙ্গে ‘বয়স যে একটা সংখ্যামাত্র’ সে কথাও প্রমাণ করেছেন তিনি।
  • ৪৪ বছরের অভিনেত্রীর অভিনয় থেকে ফিগার– সব নিয়েই দারুণ উচ্ছ্বাস রয়েছে ফ্যানেদের।
  • কাজের দিক থেকে চিত্রাঙ্গদা সিং কে আগামীতে দেখা যাবে অভিষেক বচ্চনের ‘বব বিশ্বাস’ ছবিতে।

এই সময় বিনোদন ডেস্ক: বলিউডের অন্যতম সেরা সুন্দরী ও মোহময়ী অভিনেত্রীদের তালিকায় নাম রয়েছে চিত্রাঙ্গদা সিংয়ের। তারই সঙ্গে ‘বয়স যে একটা সংখ্যামাত্র’ সে কথাও প্রমাণ করেছেন তিনি। ৪৪ বছরের অভিনেত্রীর অভিনয় থেকে ফিগার– সব নিয়েই দারুণ উচ্ছ্বাস রয়েছে ফ্যানেদের। তাঁর সবচেয়ে বড় হাতিয়ার অভিনয় দক্ষতা। সোশ্যাল মিডিয়াতেও তাঁর ভক্তের সংখ্যা বিপুল। তবে সম্প্রতি বর্ণবিদ্বেষ শিকার হওয়া নিয়ে মুখ খুলেছেন চিত্রাঙ্গদা। অভিনয়জীবনের শুরুতে কীভাবে তাঁকে গায়ের রং নিয়ে কথা শুনতে হয়েছে এবং কাজ হাতছাড়া হয়েছে সেই অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন নায়িকা।

সম্প্রতি বম্বে টাইমসকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন চিত্রাঙ্গদা। তিনি দাবি করেছেন যে, এই দেশে গায়ের রং কালো মেয়েদের বেঁচে থাকার দুর্দশা তিনিও অনুভব করেছেন। ভারতের মতো দেশে আজও মেয়েদের গায়ের রং নিয়ে যে বাছাই ও বিচার রয়েছে তা নিয়ে তিনি অবহিত এবং এর তীব্র প্রতিবাদ করেন তিনি। নিজের ত্বক ও চেহারা নিয়ে যে কোনও মানুষের গর্বিত হওয়া উচিত বলেই মনে করেন তিনি।

অভিনয় জীবনের শুরুর দিকের কথা শেয়ার করতে গিয়ে চিত্রাঙ্গদা বলেছেন, ‘আমার গায়ের রং কালো হওয়ায় বেশ কয়েকটা মডেলিং অ্যাসাইনমেন্ট থেকে বাদ পড়েছিলাম। একটি বিজ্ঞাপন থেকে বাদ পড়ার পর আমাকে পরোক্ষে বলাই হয়েছিল যে, গায়ের রঙই এর কারণ। সৌভাগ্যবশত সেই বিজ্ঞাপনের কাজটি গুলজার সাহেব দেখেছিলেন। তার পরেই মিউজিক ভিডিয়োতে কাজের অফার পাই। সেবার বুঝেছিলাম এখানে সবাই ফর্সা মেয়েদের খোঁজে।’

কাজের দিক থেকে চিত্রাঙ্গদা সিং কে আগামীতে দেখা যাবে অভিষেক বচ্চনের ‘বব বিশ্বাস’ ছবিতে। অভিষেকের প্রশংসায় পঞ্চমুখ চিত্রাঙ্গদা বলেছেন, ‘একটা চলমান এনসাইক্লোপিডিয়ার সঙ্গে কাজ করছি।’

আরও পড়ুন: ‘সেক্সি হওয়াটা একটা পার্সোনালিটি, শুধুই কারও গায়ের রং নয়!’

এই সময় ডিজিটালের বিনোদন সংক্রান্ত সব আপডেট এখন টেলিগ্রামে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন এখানে।



Continue Reading

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.