‘পুরনো পাপী! নিজের কথা শুনতে পান?’, BJP বিধায়কের ‘সংস্কার’ মন্তব্যের প্রতিবাদে নায়িকারা


হাইলাইটস

  • বিজেপি বিধায়কের এদিনের মন্তব্যে অস্বস্তি আরও বেড়েছে।
  • ধর্ষণের মতো ঘটনা শুধুমাত্র সংস্কার দিয়েই থামানো যায়, শাসন বা তলোয়ার দিয়ে নয়।
  • ফের বিতর্কিত মন্তব্য গেরুয়া শিবিরের সেনার।

এই সময় বিনোদন ডেস্ক: ধর্ষণের মত ঘটনা রুখতে পারে একমাত্র মহিলাদের সংস্কার। হাথরসকাণ্ডের উত্তজেনার মধ্যেই এমনই নিদান দিলেন উত্তরপ্রদেশের বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিং। বালিয়ার এই বিধায়কের দাবি, সংস্কার ও সরকার একজোট হলেই তৈরি হবে সুন্দর ভারত। হাথরসকাণ্ড নিয়ে এমনিতেই তীব্র সমালোচনার মুখে যোগী আদিত্যনাথের সরকার। তার উপর বিজেপি বিধায়কের এদিনের মন্তব্যে অস্বস্তি আরও বেড়েছে। বলিউডের নায়িকারাও অস্বস্তি আরও বাড়াতে মাঠে নেমে পড়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় সুরেন্দ্র সিংয়ের বক্তব্য শেয়ার করে নিজেদের মত প্রকাশ করেছেন স্বরা ভাস্কর, কৃতী শ্যানন, পূজা বেদীর মতো নায়িকারা।

কৃতী সুরেন্দ্র সিংয়ের বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করে ট্যুইট করেছেন, ‘মেয়েদের শেখানো হবে কী ভাবে ধর্ষিত না হতে হয়? উনি নিজের কথা শুনতে পান? এই মানসিকতার বদল প্রয়োজন। এটা অত্যন্ত জঘন্য। ছেলেদের খানিক সংস্কার শেখাতে পারেন না কেন এরা?’ অন্যদিকে, স্বরা ভাস্কর উন্নাও ধর্ষণের ঘটনায় সুরেন্দ্র সিংয়ের বক্তব্য ট্যুইট করে লিখেছেন, ‘এই জঘন্য লোকটা পুরনো পাপী। ধর্ষণকে আগলে রাখা বিজেপি বিধায়ক সুরেন্দ্র সিং।’ পূজা বেদী ট্যুইট করেছেন, ‘অসভ্য লোকেদের বাস, এগুলো সাফ হওয়া প্রয়োজন।…’

শনিবার বালিয়ার বিধায়ক সুরেন্দ্র সিংয়ের বক্তব্য, সরকার বা প্রশাসন নয়, একমাত্র মেয়েদের ভাল সংস্কারই ধর্ষণ থামাতে পারে। এই মন্তব্যের সমালোচনা শুরু হয়েছে। এক সাংবাদিক তাঁকে প্রশ্ন করেছিলেন, ‘রামরাজ্য বলার পরেও এখানে কেন ধর্ষণের এত ঘটনা ঘটছে?’ তার জবাবে সুরেন্দ্র বলেছেন, ‘এটা সব মা-বাবার কর্তব্য তাঁদের মেয়েদের ভালো সংস্কার দেওয়া, একটা সাংস্কৃতিক পরিবেশে তাদের বড় করা। আমি একজন বিধায়ক হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে একজন শিক্ষক। ধর্ষণের মতো ঘটনা শুধুমাত্র সংস্কার দিয়েই থামানো যায়, শাসন বা তলোয়ার দিয়ে নয়।’

হাথরসকাণ্ডের তদন্তে সিট গঠন, পাঁচ সরকারি আমলাকে সাসপেন্ড করেও বিক্ষোভ বা অসন্তোষ থামানো যায়নি। শনিবার এই ঘটনায় সিবিআই তদন্তের সুপারিশ করেছে রাজ্য সরকার। রাতে পরিবারকে অন্ধকারে রেখে জোর করে তরুণীর দেহ সৎকারের অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে। এলাহাবাদ হাইকোর্ট স্বতঃপ্রণোদিত মামলা পর্যন্ত দায়ের করেছে। জবাবদিহি করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে প্রশাসনকে। তার মাঝেই ফের বিতর্কিত মন্তব্য গেরুয়া শিবিরের সেনার।

আরও পড়ুন: ‘সরকার নয়, মেয়েরা সংস্কারী হলেই থেমে যাবে ধর্ষণ!’ নিদান বিজেপি বিধায়কের

এই সময় ডিজিটালের বিনোদন সংক্রান্ত সব আপডেট এখন টেলিগ্রামে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন এখানে।



Continue Reading

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.