ফের আইনি বিপাকে Kangana Ranaut, মানহানির মামলা কৃষক আন্দোলনের ‘দাদি’র


নিজস্ব প্রতিবেদন : ফের আইনি বিপাকে কঙ্গনা রানাউত। এবার অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করলেন কৃষক আন্দোলনের অন্যতম মুখ মাহিন্দর কউর। পঞ্জাবের ভাতিন্ডা আদালতে কঙ্গনার বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৯৯ এবং ৫০০ ধারায় মামলা দায়ের করেছেন বছর ৭৩এর দাদি মাহিন্দর কউর। আগামী ১১ জানুয়ারি এই মামলার শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছে।

ঘটনার সূত্রপাত গত ২৭ নভেম্বর। কৃষক আন্দোলনে যোগদানকারী মহিন্দ্র কউরকে ‘শাহিনবাগ দাদি’ বিলকিস বানোর সঙ্গে গুলিয়ে ফেলেন কঙ্গনা। দুই বৃদ্ধার পাশাপাশি ছবি পোস্ট করে টুইটে অভিনেত্রী মন্তব্য করে বসেন, ‘একে ১০০ টাকায় পাওয়া যায়।’ যদিও ভুল করছেন বুঝতে পেরে পরে টুইটটি মুছে দেন কঙ্গনা। যদিও ততক্ষণে তাঁর টুইটটি ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। আর এরপরেই কঙ্গনার বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠেছিলেন নেটিজেনদের একাংশ। কঙ্গনার কথার প্রতিবাদ করেন দিলজিৎ দোসাঞ্ঝ। তা নিয়ে দিলজিতের সঙ্গেও কঙ্গনার টুইট যুদ্ধ চলে। 

আরও পড়ুন-কৃষিআইনের বিরোধিতায় কৃষক আন্দোলনের মাঝে ভুয়ো খবর ছড়ানোর অভিযোগ কঙ্গনার বিরুদ্ধে

আরও পড়ুন-Karan Johar-কে বিয়ের প্রস্তাব, শ্যুটিংয়ের সময় মাঝরাতে এই কাণ্ডই করেছিলেন Farah Khan

শুধু দিলজিৎ নয়, বিষয়টি নিয়ে অনেকেই কঙ্গনার মন্তব্যে তীব্র নিন্দা করেন। এই ঘটনায় কঙ্গনাকে আইনি নোটিস পাঠিয়েছিলেন পঞ্জাবের আইনজীবী হরকম সিং। শিখ গুরুদুয়ারা ম্যানেজমেন্ট কমিটির তরফেও অভিনেত্রীকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়, বলা হয় নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে কঙ্গনাকে। আর এবার কঙ্গনার বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করলেন ‘কৃষক আন্দোলনের দাদি’ মাহিন্দর কউর। তিনি তাঁর অভিযোগপত্রে লিখেছেন, ”এই জাতীয় মন্তব্য করে, অভিনেত্রী আমার খ্যাতি এবং প্রতিপত্তি হ্রাস করেছেন। মিথ্যা টুইটের কারণে, আমি আমার পরিবারের সদস্য, আত্মীয়স্বজন, প্রতিবেশী, গ্রামবাসী এবং সাধারণ মানুষের চোখে ছোট হয়েছি। যা আমার মানসিক চাপ, যন্ত্রণা, হয়রানির, অপমানের কারণ।”





Continue Reading

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.