‘বাংলায় এবার হিংসা বন্ধ হোক’, সোশ্যাল মিডিয়ায় গর্জে উঠলেন অপর্ণা-সৃজিতরা


হাইলাইটস

  • ব্যাপক ভোটে জয়ী হয়ে তৃতীয় বারের জন্যে ক্ষমতায় ফিরেছে তৃণমূল কংগ্রেস। প্রধান বিরোধী দল হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি।
  • ভোট চলাকালীন যেমন বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এসেছে হিংসার খবর, তেমনই ফলাফল বেরোনোর পরও জারি থেকেছে হিংসার রাজনীতি।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: ২ মে প্রকাশিত হয়েছে পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল। ২০২১ সালের নির্বাচনে বাংলা থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে গিয়েছে বামফ্রন্ট এবং কংগ্রেস। ব্যাপক ভোটে জয়ী হয়ে তৃতীয় বারের জন্যে ক্ষমতায় ফিরেছে তৃণমূল কংগ্রেস। প্রধান বিরোধী দল হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। ভোট চলাকালীন যেমন বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এসেছে হিংসার খবর, তেমনই ফলাফল বেরোনোর পরও জারি থেকেছে হিংসার রাজনীতি। দিকে দিকে পুড়ছে ঘর, মরছে মানুষ। কোন দল দায়ী কিংবা কোন দল দোষী সেই বিচারে যাওয়া অর্থহীন হয়ে পড়ে যখন দেখা যায় আদতে ক্ষণে ক্ষণে ধাক্কা খাচ্ছে মানুষের সুস্থভাবে বেঁচে থাকার অধিকার। এই পরিস্থিতিতে এবার মুখ খুললেন বাংলা চলচ্চিত্র জগতে বেশ কিছু পরিচিত মুখ। সেই মুখের তালিকায় যেমন রয়েছেন অপর্ণা সেন, আবির চট্টোপাধ্যায়, পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, সৃজিত মুখোপাধ্যায়, তেমনই রয়েছেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়, সুদীপ্তা চক্রবর্তী-র মতো ব্যক্তিত্বরা।

বুধবার সকালে ট্যুইট করে অপর্ণা সেন বলেন, ‘হিংসার কোনও অন্য নাম হয় না। হিংসা হিংসাই… কোন রাজনৈতিক দল এর জন্যে দায়ী তার তরজায় যাওয়া অপ্রাসঙ্গিক। আবেদন করছি এই হিংসার ঘটনার জন্যে যারা দায়ী তাদের দ্রুত গ্রেফতার করা হোক। বাংলা অনেক যন্ত্রণা সহ্য করেছে, আর না।’

আবির চট্টোপাধ্যায় লিখেছেন, ‘একটা অনুরোধ… জয় পেয়েছেন, এবার একটু নমনীয় হন। এই মুহূর্তে শুধুমাত্র মারণ করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধেই হোক লড়াই।’

সৃজিত মুখোপাধ্যায় তাঁর ট্যুইটে লিখেছেন, ‘সিপিএম-এর দলীয় দফতর পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। যে সব Red Volunteers মানুষের সেবায় রাতদিন কাজ করছেন তাঁদের আক্রমণ ও হেনস্থা করা হচ্ছে, বিজেপি কর্মীদের হেনস্থা করা হচ্ছে, মেরে ফেলা হচ্ছে! এ কী ধরনের বিজয় উত্‍সব! এর কড়া বিরোধিতা করছি। #StopPostPollViolence।’

আরও পড়ুন: নিজের মেয়েকেই চাইল বাংলা! ২০০ পার করে ফের ক্ষমতায় তৃণমূল
ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করা হল কঙ্গনা রানাওয়াতের, ক্ষোভে ফেটে পড়লেন নায়িকা!

আহত বাঘিনী! মমতা ‘দিদি’-কে জয়ের শুভেচ্ছা কঙ্গনা রানাওয়াতের

‘পায়েল-শ্রাবন্তীদের কেন টিকিট?’ দিলীপ-কৈলাশদের তুলোধনা তথাগতর
পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় তাঁর ট্যুইটে লিখেছেন, ‘হিংসাকে কোনওভাবেই সমর্থন করা যায় না। একটা ঘটনা হলেও না। যারা দোষী তাদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে সাজা দেওয়া উচিত। সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের এই মুহূর্তে উচিত তাদের দলীয় কর্মীদের কড়া বার্তা দেওয়া। উদাহরণ তৈরি করা। বিপুল ভোটে আপনারা জয়ী হয়েছেন, তার মর্যাদা রাখুন।’

স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়ও ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করলেন তাঁর বিরক্তি। আর্জি জানালেন রাজনৈতিক হিংসা বন্ধ করার।

প্রসঙ্গত, সোমবার বাংলায় হিংসা নিয়ে মুখ খোলার জন্যে কঙ্গনা রানাওয়াতের ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট ব্যান করে দিয়েছে।

টাটকা ভিডিয়ো খবর পেতে সাবস্ক্রাইব করুন এই সময় ডিজিটালের YouTube পেজে। সাবস্ক্রাইব করতে এখানে ক্লিক করুন।

এই সময় ডিজিটাল এখন টেলিগ্রামেও। সাবস্ক্রাইব করুন, থাকুন সবসময় আপডেটেড। জাস্ট এখানে ক্লিক করুন



Continue Reading

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.