|

রিয়েল হিরো নানজীবা খান

 

এখন অনেকেরই আইডল খুলনার মেয়ে নানজীবা খান। তাঁর একান্ত সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন কাবিউল আজিজ।

 

সাক্ষাৎকার :

আনন্দ ভূবনঃ আপনিতো এখন রীতিমত ভাইরাল…..!!

নানজীবা খানঃ….হাহাহা (অট্টহাসি)। তাই নাকি…?

আ.ভূঃ নয়তো কি। প্রতিদিনই আপনাকে বিভিন্ন স্যাটেলাইট চ্যানেলে দেখা যাচ্ছে, বিভিন্ন পত্রিকায় আপনাকে নিয়ে লেখা হচ্ছে…..

না.খাঃ তা বটে। আমি এখন বেশ ব্যস্ত সময় পার করছি।প্রতিদিনই কোনো না কোনো শো অথবা রেকর্ডিং থাকছেই।

আ.ভূঃ আপনি সম্প্রতি ইউনিসেফের আয়োজনে “তরুণ প্রজন্মের উন্নয়ন” বিষয়ক এক সেমিনারে অংশগ্রহণ করেছেন….

না.খাঃ হুম। নেপালের কাঠমুন্ডুতে তিন দিনের একটি সেমিনারে আমি বাংলাদেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছি। এখানে নেপাল, পাকিস্তান, ভুটান,ভারত ও শ্রীলঙ্কার প্রতিনিধিরাসহ ইউনিসেফ, ইউএন,ইউনেস্কোর বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন।

আ ভূঃ সেমিনারে মূলত কোন কোন বিষয়গুলোকে হাইলাইট করেছেন ?

না.খাঃ তরুণ প্রজন্মের উন্নয়নের পাশাপাশি নারী অধিকার ও শিশু অধিকার নিয়েও কথা বলেছি। তাছাড়াও আমি দক্ষিণ এশিয়ার সব দেশগুলোর সমস্যা ও সেগুলোর সমাধানের পরিকল্পনা তুলে ধরেছি।

আ.ভূঃ বাংলাদেশ নিয়ে উনারা কী কোনো মন্তব্য করেছেন?

না.খাঃ ভাল একটা প্রশ্ন করেছেন। আমি এটাই বলতে চাচ্ছিলাম। সেমিনারে সব প্রতিনিধিরাই একটা বিষয়ে বেশ জোর দিয়ে বলেছেন যে “উইমেন এমপাওয়ারমেন্ট” – এ বাংলাদেশ তুলনামূলক এগিয়ে।

আ.ভূঃ আপনিতো একাধারে সাংবাদিক,লেখক, উপস্হাপক, ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর,এতো কম বয়সেই এতোগুলো অর্জন…!

না.খাঃ আমি ক্লাস এইটে পড়ার সময় প্রায় সাড়ে তিন হাজার প্রতিযোগিকে টপকিয়ে শিশু সাংবাদিক হিসেবে যাত্রা শুরু করি। বর্তমানে বাংলাদেশ টেলিভিশনে “আমরা রঙিন প্রজাপতি” “আমাদের কথা” “শুভ সকাল” অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করছি। সাথে ব্রিটিশ -আমেরিকান রিসোর্স সেন্টারের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ও বিএনসিসির ক্যাডেট অ্যাম্বাসেডর হিসেবেও কাজ করছি। এছাড়াও এবছর বইমেলায় অন্বেষা প্রকাশনী থেকে ‘অটিস্টিক শিশুরা কেমন হয়’ নামে আমার একটি বই বের হয়েছে।

আ.ভূঃ অটিস্টিক শিশুদেরকে নিয়েও কী আপনি কাজ করছেন?

না.খাঃ হ্যাঁ টুকটাক করছি এখন। তবে ভবিষ্যতে এদেরকে নিয়ে কাজ করার বড় প্ল্যান আছে আমার। এবিষয়ে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের সাথেও কথা হয়েছে।

 

আ.ভূঃ আপনি পরিচালক হিসেবেও তো বেশ সফল….

না.খাঃ কিছুটা সফল বলতে পারেন। আমার পরিচালনায় প্রামাণ্যচিত্র ‘সাদা কালো’র জন্য ইউনিসেফের মিনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড’ পেয়েছি। আমি প্রথম পরিচালনা করি স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘কেয়ারলেস’ পরে ‘গ্রো আপ’ ‘দি আনস্টিচ পেইন’ সহ এখন পর্যন্ত মোট ৯টি প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ করেছি।

আ.ভূঃ আপনার বেশ কিছু আন্তর্জাতিক ও জাতীয় পুরস্কারও আছে…..

না.খাঃ আমার প্রথম আন্তর্জাতিক পুরস্কার জয়নুল কামরুল ইন্টারন্যাশনাল চিলড্রেন পেন্টিং কমপিটিশন থেকে। আর আগেই বলেছি একটি প্রামাণ্যচিত্রের জন্য ইউনিসেফের মিনা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পেয়েছি। এবং বিএনসিসি ও ভারতেশ্বরী হোমসের পুরস্কার পেয়েছি উপস্থিত বক্তৃতার জন্য। সাথে কিছু জাতীয় পুরস্কারও পেয়েছি ।

 

আ.ভূঃ আপনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী’র সাথেও সাক্ষাৎ করেছেন। কিভাবে হলো?

না.খাঃ শুধু প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী’র সাথেই না রাষ্ট্রপতি প্রণব মূখার্জীর সাথেও সাক্ষাৎ হয়েছে আমার। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বিএনসিসি ক্যাডেট অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ভারতে গিয়েছিলাম তখন তাঁদের সাথে আমার সাক্ষাৎ হয়। সেসময় আমি ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সাক্ষাৎকার নিয়েছিলাম।.……

আ.ভূঃ আপনি আর কার কার সাক্ষাৎকার নিয়েছেন?

না.খাঃ আমি প্রথম সাক্ষাৎকারটি নিয়েছিলাম ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের। পরে র ্যাব প্রধান বেনজির আহমেদ, স্পিকার শিরিন শারমিন চৌধুরী, সায়মা ওয়াজেদ পুতুল, মেয়র সাঈদ খোকন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী,সংস্কৃতিমন্ত্রী,পররাষ্ট্রমন্ত্রী, খাদ্য মন্ত্রী, ভূমি মন্ত্রী, সমাজ কল্যাণমন্ত্রী, তথ্য-প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী, বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী, টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী সহ অনেকেরই সাক্ষাৎকার নিয়েছি আমি।
…….এবার উঠা যাক। আমাকে এক্ষুণি আবার একটা চ্যানেলে যেতে হবে। রেকর্ডিং আছে। অলরেডি অনেক দেরি হয়ে গেছে।

আ.ভূঃ শেষ একটা প্রশ্ন করবো…

না.খাঃ চলুন আমরা বরং লিফটে নামতে নামতে কথা বলি।

আ.ভূঃ আপনার ভবিষ্যত পরিকল্পনা কি?

না.খাঃ আমার ভবিষ্যত পরিকল্পনা একটাই আমার দেশকে বিশ্বের দরবারে পৌঁছে দেয়া।

আ.ভূঃ এতো ব্যস্ততার মাঝে আনন্দ ভূবনকে সময় দেবার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে। ছোট্ট করে আনন্দ ভূবন ম্যাগাজিনকে নিয়ে যদি কিছু বলতেন…..

না.খাঃ আপনাকেও ধন্যবাদ। আনন্দ ভূবন ম্যাগাজিন আপনার মতোই ইউনিক….হাহাহা। ভালো থাকবেন।

আ.ভূঃ আপনিও ভালো থাকবেন।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.