শঙ্কুর সঙ্গে ‘চায়ে পে চর্চায়’ অরিন্দম, BJP-তে যোগদানের জল্পনা ওড়ালেন পরিচালক


নিজস্ব প্রতিবেদন : রুদ্রনীল ঘোষ যশ দাশগুপ্তের পর এবার কি বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন অরিন্দম শীল? বেশ কিছুদিন ধরেই শুরু হয়েছে এই আলোচনা। সেই জল্পনায় ঘৃতাহুতি দিয়ে সোমবার ছবি পোস্ট করেন শঙ্কুদেব পন্ডা। যেখানে অরিন্দম শীলের সঙ্গে ছবি শেয়ার করে শঙ্কুদেব জানান, সোমবারের চায়ের আসরে অনেক কিছু নিয়ে আলোচনা হয়েছে তাঁদের মধ্যে। ‘চায়ে পে চর্চায়’ ‘সোনার বাংলা’ গড়া নিয়েও অরিন্দম শীলের সঙ্গে তাঁর অনেক কথা হয়েছে বলে টুইট করেন শঙকুদেব।  বিজেপি নেতার ওই টুইটের পর থেকেই জল্পনা শুরু হয়ে যায়। 

বিজেপিতে যোগদান নিয়ে প্রশ্ন করা হলে বিষয়টিকে কার্যত উড়িয়ে দিয়ে পালটা মুখ খোলেন অরিন্দম শীল। তিনি বলেন, শঙ্কুদেব তাঁর বহুদিনের পরিচিত। শঙ্কুদেব পন্ডার সঙ্গে চা খেতে খেতে অনেক বিষয় নিয়ে তাঁদের আলোচনা হয়েছে। তাঁর সঙ্গে চা খেয়ে গিয়ে শঙ্কুদেব পন্ডা যদি ছবি পোস্ট করেন, তাহলে সেখান থেকে কোনওভাবেই প্রমাণিত হয় না যে তিনি বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন। তিনি এই মুহূর্তে কোনওভাবেই রাজনীততে আসছেন না।  সিনেমাটাই বোঝেন, সেটাই তৈরি করতে চান। সিনেমা তৈরি ছেড়ে তিনি কোনওভাবেই রাজনীতিতে এই মুহূর্তে হাজির হবেন না বলে স্পষ্ট জানান অরিন্দম শীল। 

আরও পড়ুন : প্রথম ভাত খেল ‘রাজশ্রীর’ ছেলে যুবান, দেখুন ভিডিয়ো

পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, বাম, ডান বা গেরুয়া কোনও দলেই যোগ দিচ্ছেন না। রাজনীতিতে যোগ দিতে হলে, অনেক আগেই তিনি তা করে ফেলতে পারতেন। তিনি সামাজিকভাবে সচেতন একজন মানুষ।  এই মুহূর্তে তাঁর রাজনীতিতে আসার কোনও আগ্রহ নেই। পাশাপাশি রাজনীতিতে আসতে গেলে প্রস্তুতি দরকার।  ভবিষ্যতে যদি কখনও তিনি রাজনীতিতে হাজির হন, তার এখনও অনেক দেরি বলে স্পষ্ট জানান অরিন্দম শীল। পাশাপাশি সরকারি অনুষ্ঠানে যাওয়া মানে তাঁকে সেই দলের সমর্থক ভাবার কোনও কারণ নেই। আগেও তাঁর যে অবস্থান ছিল, এখনও তাই রয়েছে বলেও স্পষ্ট জানান পরিচালক। 

আরও পড়ুন : Bigg Boss 14: ফের বিয়ের পিঁড়িতে Rubina Dilaik

প্রসঙ্গত সোমবার শহরের একটি পাঁচতারা হোটেলে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর টলি ইন্ডাস্ট্রির প্রায় ৮০-১০০ জনের সঙ্গে দেখা করবেন। সেখানে কি অরিন্দম শীল হাজির হবেন বলে প্রশ্ন করা হলে স্পষ্ট উত্তর দেন পরিচালক।  তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী তাঁকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন, এটা তাঁর কাছে বড় পাওনা।  তিনি রাজনীতির লোক নন, সিনেমা সংস্কৃতি নিয়ে আলোচনা হবে বলেই তিনি সেখানে যাচ্ছেন বলেও স্পষ্ট জানান অরিন্দম শীল। 





Continue Reading

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.