আবারো তুমুল সমালোচনার মুখে মাহিয়া মাহি

এবারের ঈঁদে মাহিয়া মাহি অভিনীত ২টি সিনেমা মুক্তি পায়। ছবিগুলো হলো “জান্নাত ও মনে রেখো”। দুটি ছবিই ব্যবসায়িকভাবে হল মালিকদেরকে আশানুরূপ আশা দেখাতে পারেনি। এবং দর্শকও টানতে পারছেনা দুটি ছবি। তাই ব্যবসায়িকভাবে ফ্লপই বলা যায় ছবি দুটিকে। ছবি দুটির জন্য নায়িকা হিসেবেও সমালোচিত ও ফ্লপ হয়েছেন মাহিয়া মাহি।

এদিকে ছবিগুলোর জন্য সমালোচিত হবার পর আবারো নতুন করে সমালোচনার মুখে পড়েছেন মাহিয়া মাহি। সম্পতি ফেসবুকে আপলোড হয় মাহির ফ্যামিলির সাথে তার কিছু ঘনিষ্ঠসুলভ পিক। আর সেই পিকেই দেখা যায় বাবা-মার সাথে খুব নোংরামিতে মেতেছেন তিনি। এমনভাবে পিক তুলেছেন মনে হবে যেনো কোনো স্বামী-স্ত্রী আনন্দে মেতে উঠেছেন। যদিও সম্পর্কে তারা বাবা-মা ও মেয়ে। কিন্তু পিকগুলো দেখলে সেটা মনে হবেনা। মাহির বাবা বেহায়াদের মতো হাফপ্যান্ট পড়ে শরীরে কোনো কাপর না রেখে মেয়ের সাথে নোংরামিতে লিপ্ত হয়েছেন। এমন অসভ্য নোংরামি কোনো নায়িকা তাদের বাবার সাথে করেছেন বলে মনে হয়না। এই প্রথমই বাবার সাথে কোনো নায়িকার গবীর ঘনিষ্ঠসুলভ সম্পর্ক পাওয়া গেছে। এমন কাজ কি কোনো ভদ্র ফ্যামিলির ব্যক্তিত্বের মধ্যে পড়ে। বাবা- মেয়ের সম্পর্কতো বাবা-মেয়ের মতোই হওয়া উচিত। কিন্তু মাহি যে চরিএটা দেখালো সেটা কখনও বাবা-মেয়ের সম্পর্কে পড়েনা। মনে হবে যেনো গার্লফ্রেন্ড ও বয়ফ্রেন্ডের সম্পর্ক। এ নিয়ে ফেসবুকে চলছে সমালোচনার ঝড়। বিভিন্ন দর্শক বিভিন্নভাবে যে যার মতো মন্তব্য করছে মাহির নোংরা ফ্যামিলি নিয়ে।

কয়েকজন এফবি ভক্তের মন্তব্য নিচে তুলে ধরা হলো:-
এস সাজু, নামের একজন লিখেন:
এ কেমন ফ্যামিলি!
নাই কোনো লাজ শরম।
বাবা-মেয়ে-মা সব যেনো বেহায়া।
মুখের এক্সপ্রেশন দেখলে মনে হয় সবাই নেশাখোর।
ছিঃ ছিঃ
আসলে সন্তানের জন্য পরিবারই শ্রেষ্ঠ স্কুল। সেই স্কুলেই যখন আদব-কায়দা শিক্ষা দেয়া হয়না তখনই সন্তানের স্ক্যান্ডাল পর্যন্ত বের হয়।

ইমরান হোসেন, নামে আরেকজন লিখেন:
ব্যক্তিত্ব=ব্যক্তিত্বহীনতা!

ঢালিউডে প্রথমটা নেই, কিন্তু দ্বিতীয়টার অভাব নেই! কেউ বা বেফাস মন্তব্যে, কেউ স্ক্যান্ডালে, আবার কেউ আপওিকর ছবি আপলোডে!

তাদের অনেকেই হয়তো ভুলে যান যে, তারাও সামাজিক, নিশ্চয়ই অসামাজিক নয়!
ভুলে যান বলেই হয়তো, নিজের মা-বাবার সাথে কিভাবে পিক তুলতে হয়, সেই নূন্যতম বোধটুকু পর্যন্ত নাই।

আমি মনে করি, উনাকে খুব শীঘ্রই ব্যক্তিত্ব, সাধারণ জ্ঞান সম্পর্কিত রিহার্সেল করা উচিত!

মন্তব্য করে এমডি আশীক লিখেন,
যে নায়িকা মা-বাবার সাথে এভাবে পিক তুলতে পারে তার ক্লাস কি সেটা বুঝা হয়ে গেছে।

এস আর মানিক শোভা লিখেন,
যেই নায়িকা ছয় বছর ক্যারিয়ারে ছয়টি বিয়ে বসতে পারে, যার লিংক পাওয়া যায়। তাকে নিয়ে কিছু বলার নেই।
ধন্যবাদ।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.