সুশান্ত মৃত্যু-মামলায় খুনের ধারা যোগ করছে CBI! স্বস্তি রাজপুত পরিবারে…


হাইলাইটস

  • সুশান্তের দিদি শ্বেতা সিং ইনস্টাগ্রামে নিজের একটি ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘শেষ পর্যন্ত!! সিবিআই ৩০২ ধারা যোগ হতে চলেছে।’
  • সুশান্তের মৃত্যুতদন্ত শুরু করার পর সিবিআইয়ের তরফে এটিই এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বড় পদক্ষেপ মনে করা হচ্ছে।
  • পেশাদারি ভাবেই এই তদন্ত চালিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তাঁরা। যে যে অভিযোগ কে কে সিং এনেছেন সবই খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এই সময় বিনোদন ডেস্ক: তিন দিন আগেই সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুতদন্তের পরিস্থিতি নিয়ে মুখ খুলেছিল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু তদন্তে গত একমাসেরও বেশি সময় ধরে তদন্ত করছে সিবিআই। ছেলের মৃত্যুর একমাস পরই পটনা পুলিশে রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন কেকে সিং। সেই FIR সূত্রেই তদন্তে যোগ দেয় ED,NCB। পাওয়া গিয়েছে মাদক যোগ। সেই সূত্রেই রিয়া চক্রবর্তী, শৌভিক চক্রবর্তী সহ-১৯ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। কিন্তু সিবিআই তদন্ত শুরু করার পর কেটে গিয়েছে ৪০ দিন।

তবে সূত্রের খবর এবার খুব তাড়াতাড়ি এই মৃত্যুতদন্তের মামলায় ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ ধারা অর্থাৎ, খুনের ধারা যোগ করতে চলেছেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। সুশান্তের মৃত্যুতদন্ত শুরু করার পর সিবিআইয়ের তরফে এটিই এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বড় পদক্ষেপ মনে করা হচ্ছে। কারণ, এইমসের চিকিৎসকের দলও সুশান্তের মৃত্যুতে খুনের যোগ দেখতে পেয়েছেন বলেই ভিসেরা রিপোর্ট নতুন করে পরীক্ষা করে সিবিআইকে জানিয়েছে। এই খবরে স্বাভাবিক ভাবেই স্বস্তিতে সুশান্তের পরিবার। সুশান্তের দিদি শ্বেতা সিং ইনস্টাগ্রামে নিজের একটি ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘শেষ পর্যন্ত!! সিবিআই ৩০২ ধারা যোগ হতে চলেছে।’ সিবিআইয়ের প্রতি তাঁদের আস্থা রয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

সম্প্রতি সুশান্তের পারিবারিক আইনজীবী বিকাশ সিং একটি বিবৃতি জারি করেছেন। যেখানে তিনি বলেন, ‘সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত থেকে ঘটনা এখন সম্পূর্ণ ঘুরে গিয়েছে বলিউডের ড্রাগ যোগ বিষয়ে। ফলে নষ্ট হচ্ছে মৃত্যুর প্রমাণ। এই ঘটনায় বিরক্ত সুশান্তের পরিবার। সিবিআই তার নিজের মতো করে তদন্ত শুরু করেছিল। কিন্তু মাঝপথে হঠাৎ করে খেই হারিয়ে গেল। এতদিনে সিবিআই-এর একটি সিদ্ধান্তে আসা উচিত ছিল। বলিউডে মাদক যোগ নিয়ে আলাদা ভাবে তদন্ত করছে এনসিবি। যদিও এই মাদক কাণ্ডের সঙ্গে যোগসূত্র রয়েছে সুশান্তের মৃত্যুর। কিন্তু এখন সর্বত্র বলিউডের ড্রাগ কেসটাই মুখ্য। বাকি তদন্তের দিকে কেউ নজর দিচ্ছেন না’।


তাঁরা আরও বলেন, পেশাদারি ভাবেই এই তদন্ত চালিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তাঁরা। যে যে অভিযোগ কে কে সিং এনেছেন সবই খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তদন্ত কিন্তু অব্যাহত। এমনকী রিয়া ও শৌভিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় তাঁদেরও গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতার হয়েছে সুশান্তের হাউস ম্যানেজার, রাঁধুনি। তবে এই তদন্তের মুখ কোন দিকে হয় সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছে পুরো দেশ।

আরও পড়ুন: খুনই হয়েছেন সুশান্ত, AIIMS ফরেনসিক রিপোর্টে খারিজ আত্মহত্যার তত্ত্ব!

এই সময় ডিজিটালের বিনোদন সংক্রান্ত সব আপডেট এখন টেলিগ্রামে। সাবস্ক্রাইব করতে ক্লিক করুন এখানে।





Continue Reading

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.