২ অক্টোবর থেকে শুরু ‘রাধে’র শ্যুটিং, ফ্লোরে ফিরছেন ‘দাবাং’ খান!


হাইলাইটস

  • সচেতনতার কথা মাথায় রেখেই পুরো ইউনিটের জন্য একটি হোটেল নেওয়া হয়েছে।
  • যেখানে থাকবেন পুরো টেকনিশিয়ন টিম ও অন্যান্য সদস্যেরা।
  • প্রতিদিনের যাতায়াত এড়াতেই এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।
  • এমনকী যতদিন শ্যুটিং চবে সেই কদিন শ্যুটিং স্পটের বাইরে বেরনো যাবে না

এই সময় বিনোদন ডেস্ক: লকডাউনের জেরেই থমকে গিয়েছিল সলমান খানের রাধের শ্যুটিং। আনলক পর্বে ফের ফ্লোরে ফিরছেন ভাইজান। ২ অক্টোবর থেকে শুরু হবে শ্য়ুটিং। করোনার প্রকোপ শুরু হওয়ার পরও ঝুঁকি নিয়েই শ্যুটিং করছিলেন তিনি। কিন্তু লকডাউন শুরু হলে শ্যুটিং বন্ধ রাখতে বাধ্য হন তিনি। লকডাউনের সময়টা সলমান বেশিরভাগ সময় তাঁর পানভেলের ফার্ম হাউসেই কাটিয়েছেন। নিজের হাতেও চাষ করতে দেখা গিয়েছে তাঁকে।

পুরো টিম নিয়ে মুম্বইয়ের অদূরে কাজরাটের এনডি স্টুডিয়োতে চলবে শ্যুটিং। যাবতীয় বিধিনিষেধ মনেই হবে শ্যুটিং। সেকথা জানান প্রযোজক সোহেল খান। ১৫ দিনের শ্যুটিং এনডি স্টুডিয়োতে মিটলে বাকি কাজ হবে বান্দ্রার মেহবুব স্টুডিয়োতে।

সচেতনতার কথা মাথায় রেখেই পুরো ইউনিটের জন্য একটি হোটেল নেওয়া হয়েছে। যেখানে থাকবেন পুরো টেকনিশিয়ন টিম ও অন্যান্য সদস্যেরা। প্রতিদিনের যাতায়াত এড়াতেই এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এমনকী যতদিন শ্যুটিং চবে সেই কদিন শ্যুটিং স্পটের বাইরে বেরনো যাবে না। টিম ছাড়া কারোর সঙ্গে দেখা করাও যাবে না। এছাড়াও হোটেলে থাকছে বেশ কিছু নিয়ম বিধি। আর এই সব নিয়ম যাতে কড়া ভাবে মেনে চলা হয় সেদিকে নজর রাখছেন প্রযোজক। তিনি আরও জানান, কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশিকা মেনেই একজন হেলথ অফিসার থাকছেন সেটে। এছাড়াও থাকছে চিকিৎসক ও অ্যাম্বুল্যান্সের ব্যবস্থাও। সেটে ঢোকার আগে স্যানিটাইজেশন ও তপমাত্রা দেখা আবশ্যক। ইউনিটের সব সদস্যদের জন্য মেডিক্লেম করে দেওয়া হয়েছে। বেশ কিছু চুক্তিপত্রে সইও করেছেন তাঁরা। থাকছে পর্যাপ্ত পরিমাণে পিপিই কিট ও মাস্ক। একটি টিমকে আলাদা ভাবে নিয়োগ করা হয়েছে যাঁরা দেখবে পিপিই কিট ও মাস্ক ঠিক করে ব্যবহার করা হচ্ছে কিনা এবং ব্যবহারের পর তা ঠিক করে ডিসপোজ হচ্ছে কিনা, তা দেখার দায়িত্বও ওই টিমের।

আরও পড়ুন
Unlock 5: জারি কেন্দ্রীয় নির্দেশিকা, সাত মাস পর খুলছে সিনেমা হল!

রাধের পরিচালনার ভার রয়েছে প্রভু দেবার উপর। সলমনের বিপরীতে থাকছেন দিশা পাটানি। এছাড়াও দেখা যাবে দ্যাকি শ্রফ, রণদীপ হুডার মতো অভিনেতাকে। এই বছর ঈদে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ছবিটির। কিন্তু লকডাউন আর করোনার জেরে বাতি সেই পরিকল্পনা। আর তাই কোনও রকম তাড়াহুড়ো নেই প্রযোজকের। পরের বছর ঈদেই আপাতত মুক্তির দিনক্ষণ ঠিক হয়েছে রাধের। যদিও এখন সেভাবে কিছুই জানানো হয়নি। এই ছবির আংশিক প্রযোজক সলমান নিজেও।

এই সময় ডিজিটাল এখন টেলিগ্রামেও। সাবস্ক্রাইব করুন, থাকুন সবসময় আপডেটেড। জাস্ট এখানে ক্লিক করুন



Continue Reading

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.