KYC প্রতারণা থেকে বাঁচুন আপনি! মেনে চলুন RBI এর পরামর্শ

0 12


হাইলাইটস

  • KYC প্রতারণার হাত থেকে সমাধানের রাস্তা RBI এর।
  • পিন ওটিপি ও অন্যান্য তথ্য দেওয়ায় না RBI এর।
  • এরকম অনুরোধে ব্যাঙ্কের শাখার সঙ্গে যোগাযোগের পরামর্শ।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক : মঙ্গলবার রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া (Reserve Bank of India) বা RBI একটি সতর্ক বার্তা জারি করেছে যাতে, সাধারণ মানুষকে সাম্প্রতিক প্রতারণামূলক কার্যকলাপ যে ভাবে বাড়ছে সেই বিষয়ে অবহিত করা হয়েছে। আরবিআই ১৩ সেপ্টেম্বর একটি টুইট প্রকাশ করেছে যাতে, আপনার গ্রাহককে জানুন (কেওয়াইসি) নথি সম্পর্কিত ব্যাংক জালিয়াতির বিরুদ্ধে জনগণকে সতর্ক করেছে। শীর্ষ ব্যাংক তাদের টুইট এবং প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জনগণকে সতর্ক করছে তারা যেন তাদের ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট-সংক্রান্ত তথ্য প্রতারকদের সঙ্গে আদান প্রদান না করেন। আপাতদৃষ্টিতে, আরবিআই গ্রাহকদের কেওয়াইসি আপডেট করার নামে প্রতারণার শিকার হওয়ার বিষয়ে অনেক অভিযোগ এবং প্রতিবেদন পেয়ে আসছে। শীর্ষ ব্যাংক জানিয়েছে, সাধারণ জনগণের কিছু ব্যক্তিগত তথ্য যেমন লগইন তথ্য, কার্ডের বিবরণ, পিন নম্বর বা এমনকি এককালীন
পাসওয়ার্ড শেয়ার করা একেবারেই উচিত নয়।

আরবিআই কর্তৃক জারি করা টুইটে বলা ছিল: “কেওয়াইসি আপডেট করার নামে জালিয়াতির বিরুদ্ধে আরবিআই সতর্ক করছে।” টুইটটিতে
আরবিআইয়ের সম্পূর্ণ অফিসিয়াল প্রেস রিলিজের লিঙ্কটি ছিল। প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরবিআই বলেছে, ‘‘এই ধরনের ক্ষেত্রে সাধারণ পদ্ধতিতে
অপ্রত্যাশিত যোগাযোগ করার (যেমন ফোন কল, এসএমএস, ইমেইল ইত্যাদির) মাধ্যমে গ্রাহককে কিছু ব্যক্তিগত তথ্য, অ্যাকাউন্ট লগইন
শেয়ার করার জন্য অনুরোধ করা হয়ে থাকে। বিস্তারিত কার্ড তথ্য, পিন, ওটিপি, ইত্যাদি চাওয়া হয় অথবা অননুমোদিত বা যাচাই না করা
অ্যাপ্লিকেশন ইনস্টল করতে বলে সেখানে যোগাযোগে প্রদত্ত একটি লিঙ্ক ব্যবহার করে কেওয়াইসি আপডেট করার কথা বলা হয় । শুধু তাই নয়
এই ধরনের যোগাযোগগুলির সময় অ্যাকাউন্ট বন্ধ কিংবা ব্লক হয়ে যাবে বলেও হুমকি দেওয়া হয়ে থাকে বলে জানা গিয়েছে। তখন একবার
গ্রাহক কল অথবা বার্তা কিংবা অননুমোদিত আবেদনের মাধ্যমে এই সব তথ্য শেয়ার করলে, প্রতারকরা গ্রাহকের অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করে
গিয়ে তাকে প্রতারণা করে।’’

এর পাশাপাশি শীর্ষ ব্যাংকে আরও বলেছে, “জনসাধারণকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে যে অ্যাকাউন্টের লগইন বিবরণ, ব্যক্তিগত তথ্য,
কেওয়াইসি নথির অনুলিপি, কার্ডের তথ্য, পিন, পাসওয়ার্ড, ওটিপি ইত্যাদি তথ্য অজ্ঞাত ব্যক্তি বা সংস্থাকে কোনও ভাবেই জানাবেন না।”
প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে যে, গ্রাহক এমন ধরনের অনুরোধ পেলে যাচাই না করা বা অননুমোদিত চ্যানেল বা ওয়েবসাইট বা এমনকি
অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে এমন তথ্য দিয়ে দেওয়া উচিত নয়। সেক্ষেত্রে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে, এমন অনুরোধগুলি করা হলে,তখন গ্রাহকদের
অবিলম্বে তাদের ব্যাংক শাখার সঙ্গে যোগাযোগ করার দরকার যাতে তিনি যাচাই করে নিতে পারেন এইসব নথি বা তথ্যে দেওয়ার প্রয়োজনীয়তা
আদৌ আছে কি না৷

তৃতীয় ঢেউ সামলাতে তৈরি শিল্প, জানাচ্ছেন শক্তিকান্ত দাস
নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলির দ্বারা পর্যায়ক্রমে একজনের কেওয়াইসি আপডেট করার প্রয়োজনীয়তার পটভূমিতে রয়েছে তাতে এটা করা হচ্ছে। যদিও
এটি একটি আবশ্যক তবে আরবিআই-এর এর প্রেস রিলিজ অনুসারে এটি করার প্রক্রিয়াটি উল্লেখযোগ্যভাবে সরলীকৃত করা হয়েছে।
আরবিআই বলেছে, “এটাও ব্যাখ্যা করা হয়েছে যে, নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলির কেওয়াইসি -র পর্যায়ক্রমিক আপডেট করার প্রয়োজন রয়েছে, তবে
১০ মে, ২০২১ তারিখের সার্কুলারের মাধ্যমে কেওয়াইসির পর্যায়ক্রমিক আপডেট করার প্রক্রিয়াটি অনেকটা সরলীকৃত করা হয়েছে।
অধিকন্তু, ৫ মে, ২০২১ তারিখের সার্কুলারের মাধ্যমে, নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলিকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে যে সব গ্রাহক অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে
যেখানে কেওয়াইসি-র পর্যায়ক্রমিক আপডেট করার তারিখ রয়েছে এবং সেই তারিখে তা করা বাকি আছে, সেই ধরনের অ্যাকাউন্ট
পরিচালনার উপর এই কারণে কোনও বিধিনিষেধ ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ পর্যন্ত আরোপ করা হবে না , যদি না কোন নিয়ন্ত্রক বা প্রয়োগকারী সংস্থা
অথবা আদালতের আইন ইত্যাদির নির্দেশের তাতে পরোয়ানা না থাকে। “

এই কথা মাথায় রেখে, স্ক্যামার এবং প্রতারকদের থেকে সাবধানে থাকুন এবং যদি এমন কোনও অনুরোধ বা কল পান তখন আপনার ব্যাংকের
স্থানীয় শাখার সঙ্গে যোগাযোগ করে বিষয়টির ব্যাপারে নিশ্চিত হন । তারা (প্রতারকরা) যাই বলুক না কেন- যদি আপনি আপনার বিবরণ শেয়ার
না করেন তাহলে অ্যাকাউন্টগুলি বন্ধ করা হবে ইত্যাদি হুমকিও যদি পান সেক্ষেত্রে সবচেয়ে নিরাপদ এবং দ্রুততম উপায় হল আপনার
ব্যাংকে অবিলম্বে কল করে বিষয়টা যাচাই করে নেওয়া ৷

Read More
: কেন্দ্র টিকা দিতে পারেনি, তাকে দেশদ্রোহী বলবেন?



Source link

Leave A Reply

Your email address will not be published.