মিকা থেকে আরিয়ান, বহু তারকাকে ধরেছেন সমীর ওয়াংখেড়ে! এদিকে স্ত্রী বলি-অভিনেত্রী

0 5


টিনসেল টাউনের ত্রাস এখন সমীর ওয়াংখেড়ে। বলিউডের অন্ধকার জগতের পর্দা ফাঁস করার কাজে লেগে রয়েছেন বহু আগে থেকেই। মাদক যোগ থেকে শুরু করে কর ফাঁকি– সবেতেই বলি-অভিনেতাদের কাছে সবার আগে পৌঁছে যান তিনি মূর্তিমান আতঙ্ক হয়ে। 

ওয়াংখেড়ে-র কাছে খবর ছিল মুম্বইয়ের মাঝ সমুদ্রের ওই প্রমোদ তরীর হাই-প্রোফাইল পার্টিতে থাকতে পারেন বলিউডের কোনও এক স্টার কিড ও তাঁর বন্ধু। ফলে ছদ্মবেশে টিম নিয়ে নিজেই সেখানে হাজির হন ওয়াংখেড়ে। এর আগে নিজের ‘দাবাং’ মেজাজের জন্য খবরে এসেছিলেন সুশান্ত-রিয়া কেসের সময়। এর আগেও তাঁর হাতে ধরা পড়েছে একাধিক বলি সেলেব। 




এই ওয়াংখেড়ে ২০১১ সালে মুম্বই বিমানবন্দরে বিশ্বকাপ ট্রফি পর্যন্ত আটকে দিয়েছিলেন। অভিযোগ, সোনায় মোড়া ট্রফিটির আমদানি শুল্ক ফাঁকি দেওয়া হয়েছিল। পরে সেই শুল্ক মিটিয়ে ট্রফি ছাড়াতে হয়। ২০১৩ সালে বিদেশি মুদ্রা সহ মুম্বই বিমানবন্দর থেকে গ্রেফতার করেন মিকা সিং-কে। রিয়া চক্রবর্তীর ওপর তদন্তের দায়িত্বও ছিল তাঁরই কাঁধে। 

স্ত্রী-র সঙ্গে সমীর ওয়াংখেড়ে। 
স্ত্রী-র সঙ্গে সমীর ওয়াংখেড়ে। 

২০০৮ সালে ব্যাচের আইআরএস আধিকারিক সমীর ওয়াংখেড়ে। সঙ্গে আবার তাঁর সঙ্গে রয়েছে বলি যোগাযোগও। জানা যায়, নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর এই অফিসার সমীর ওয়াংখেড়ে হলেন বলিউডের এক অভিনেত্রী স্বামী। ২০০৩ সালে অজয় দেবগনের ‘গঙ্গাজল’ ছবিতে কাজ করেছেন ওই অভিনেত্রী। নাম ক্রান্তি রেদকরে। ২০০৭ সালে বিয়ে হয় সমীর ওয়াংখেড়ে আর ক্রান্তি রেদকরের। একাধিক মারাঠি ছবিতেও অভিনয় করেছেন ক্রান্তি। মারাঠি সিনেমা ‘কাকন’-এর পরিচালনাও করেছেন।

২০০৮ সালে ব্যাচের আইআরএস আধিকারিক সমীর ওয়াংখেড়ে। সঙ্গে আবার তাঁর সঙ্গে রয়েছে বলি যোগাযোগও। জানা যায়, নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর এই অফিসার সমীর ওয়াংখেড়ে হলেন বলিউডের এক অভিনেত্রী স্বামী। ২০০৩ সালে অজয় দেবগনের ‘গঙ্গাজল’ ছবিতে কাজ করেছেন ওই অভিনেত্রী। নাম ক্রান্তি রেদকরে। ২০০৭ সালে বিয়ে হয় সমীর ওয়াংখেড়ে আর ক্রান্তি রেদকরের। একাধিক মারাঠি ছবিতেও অভিনয় করেছেন ক্রান্তি। মারাঠি সিনেমা ‘কাকন’-এর পরিচালনাও করেছেন। |#+|

 



Source link

Leave A Reply

Your email address will not be published.