‘শেষ পাতা’র শ্যুটিং শেষে পরিচালকের প্রশংসায় পঞ্চমুখ প্রসেনজিৎ

0 10


হাইলাইটস

  • পরিচালক অতনু ঘোষ ও অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ডুয়ো দিন দিন জুটিতে পরিণত হচ্ছে
  • অতনু ঘোষ পরিচালিত আগামী ছবি ‘শেষ পাতা’র জন্য নিজেকে সম্পূর্ণ বদলে ফেলেছেন ‘বুম্বাদা’
  • এই লুকে নায়ক প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়কেই চেনা দায়

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় মানেই পারফেকশন। চরিত্রের প্রয়োজনে বার বার নিজেকে ভেঙেছেন অভিনেতা। তাঁর ডেডিকশনই তাঁকে সকলের থেকে আলাদা করেছে। অতনু ঘোষ পরিচালিত আগামী ছবি ‘শেষ পাতা’র জন্য নিজেকে সম্পূর্ণ বদলে ফেলেছেন ‘বুম্বাদা’। শেষ হল সেই ছবিরই শ্যুটিং। নিজের ইনস্টাগ্রামে গোটা টিমের সঙ্গে তোলা একটি ছবি পোস্ট করেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। নিজের পোস্টে টলিউডের ‘বুম্বা দা’ লেখেন, অতনু ঘোষের সঙ্গে কাজ করা সবসময়ই তাঁর কাছে আনন্দদায়ক। পাশাপাশি পুরো শুটিং জার্নিটাকে সুন্দর ও উপভোগ্য করে তোলার জন্য ‘কাস্ট এন্ড ক্রু’ সহ টিমের সকলকে ধন্যবাদও জানান অভিনেতা।

‘অনেক ভালোবাসা’, রচনাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা প্রসেনজিতের


পরিচালক অতনু ঘোষ ও অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ডুয়ো দিন দিন জুটিতে পরিণত হচ্ছে। ‘ময়ূরাক্ষী’ ও ‘রবিবার’ ছবির পর ফের অতনু ঘোষের ছবিতে মুখ্য চরিত্রে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। ছবির নাম ‘শেষ পাতা’। এটি তাঁদের একসঙ্গে করা তিন নম্বর ছবি। অর্থাৎ এই ছবির হাত ধরেই হ্যাটট্রিক করছে এই জুটি। ছবিতে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা যাবে গার্গী রায়চৌধুরী, বিক্রম চট্টোপাধ্যায় ও রায়তী ভট্টাচার্যকে।
এই ছবিতে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের চরিত্রের নাম বাল্মিকী। পেশায় যিনি একজন লেখক। এই বাল্মিকী চরিত্রটি কেমন? অভিনেতার কথায়, এমন একটি চরিত্র যা সচরাচর ভারতীয় সিনেমায় দেখা যায়নি। তিনিও এর আগে কখনও করেননি। এই চরিত্রটি করার জন্যে নিজেকে সম্পূর্ণ বদলে ফেলেছেন অভিনেতা। এক মাথা পাকা চুল, মুখে রুগ্নতার ছাপ, কালো মোটা ফ্রেমের চশমা। শুধু তাই নয় অভিনেতার মুখ ভর্তি কাঁচা পাকা দাড়ি। এই লুকে নায়ক প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়কেই চেনা দায়। এই ছবিতে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের মেকআপ-স্টাইলিংয়ের দায়িত্বে রয়েছেন সোমনাথ কুণ্ডু। পোশাকের দায়িত্বে রয়েছেন সাবর্ণী দাস। প্রথমবার প্রসেনজিতের গালের এক অংশে কালো দাগ। চোখের নীচে পাউচ। মাথায় টাক পড়ার আভাস। নায়ক বলেন, ‘এমন কালো দাগ অনেকের মুখে দেখা যায় একটা বয়সের পর। কিছু ছবি আমি বেছে রেখেছিলাম। সোমনাথকে দিই। সেটায় আমার মুখে অদ্ভুত বদল এসেছে। সোমনাথ চোখের তলায় পাউটচা করছে। ওরকম পাউচ আমার নেই। তবে এই লুকের জন্য আমরা প্রস্থেটিক মেকআপ করছি না। আমার লুক যাঁরা ডিজাইন করে তাঁরা বলতে থাকে, আমি অনেক সহযোগিতা করি বলেই, এরকম লুক বানাতে পারে।’

রুনা লায়লা ও আলমগীরের বাড়িতে অতিথি শ্রীলেখা
ঋণ শুনতে যতটা ছোট তার বোঝা কিন্তু তার থেকে অনেক বেশি। ঋণ তো শুধু আর্থিক নয়, আরও কত ধরনের ঋণের তলায় চাপা পড়ে যায় আমাদের জীবন। এবার ঋণকে কেন্দ্র করেই মনস্তত্ত্বের গল্পই তুলে ধরবে অতনুর এই আগামী ছবি ‘শেষ পাতা’।





Source link

Leave A Reply

Your email address will not be published.