জোর তরজা! প্রযোজক দেবকে একহাত নিলেন পরিচালক অনিকেত

0 6


এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: বেশ কিছু দিন ধরেই চলছে ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’-র প্রযোজক-পরিচলক তরজা। এবার সরাসরি দেবকে উদ্দেশ্য করে ফেসবুকে পোস্ট করলেন এই ছবির পরিচালক অনিকেত চট্টোপাধ্যায়। পরিচালক লেখেন, ছবির প্রযোজক ২২ থেকে ২৩ দিনের শ্যুটিং-এ মোটে দু-তিনদিন হাজির ছিলেন। সম্প্রতি এই ছবির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার প্রেস কনফারেন্স হয় শহরের এক পাঁচতারা হোটেলে। অনিকেতের কথায় সেখানে ডাকা হয়নি ছবির পরিচালক সহ অন্যান্য ছবির বানানোর নেপথ্য কারিগরদের। তাঁরা হয়তো সেখানে যাওয়ার উপযুক্ত নন।

টলিপাড়ায় মাদকযোগ? প্রযোজকের ফেসবুক পোস্ট ঘিরে শোরগোল
টলিপাড়ায় যে সম্পর্কের সমীকরণ প্রতিনিয়ত বদলায় তার জ্বলন্ত উদাহরণ হলেন এই পরিচালক-প্রযোজক জুটি। দেব তাঁর প্রযোজনা সংস্থা তৈরির সময় থেকে এই পরিচালকের সঙ্গে জুটি বেঁধে একের পর এক ছবি করেছেন। যার মধ্যে রয়েছে ‘কবীর’, ‘হইচই আনলিমিটেড’। কিন্তু তাঁদের সম্পর্কের অবনতি ঘটে ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’-র সময় থেকে। শোনা যায় তাঁদের সম্পর্কের অবনতি ঘটে ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রী’-র একটি গানকে কেন্দ্র করে। ছবিতে ‘কমলা ঝড়’ গানটি বদলে তা ‘বোম্বাগড়ে ঝড়’ করেছেন প্রযোজক দেব।

১০ বছর পর বিয়ের পিঁড়িতে গুরমিত-দেবীনা!

সম্প্রতি ছবির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ারের প্রেস কনফারেন্সে ডাকা হয়নি পরিচালক সহ ছবির অন্যান্য টিম মেম্বারদের। সেই নিয়েই নিজের ক্ষোভের কথা ফেসবুকে লেখেন অনিকেত চট্টোপাধ্যায়। পরিচালকের কথায়, ‘ছবি কেবল পরিচালকের নয়, ছবি তৈরি করে একটা বড় টিম, তাতে ডি ও পি, মানে যিনি ফটোগ্রাফির দায়িত্বে থাকেন, (হরেন্দ্র কুমার, সুপ্রিয় দত্ত) এডিটর, যিনি সম্পাদনা করেন, আর্ট ডিরেক্টর যাঁরা সেট তৈরি করেন, কস্টিউম ডিজাইনার, (অপু) যিনি পোষাক, পরিচ্ছদের দায়িত্বে থাকেন, এছাড়াও অসংখ্য মানুষ যাঁরা দিনরাত খেটে একটা ছবি তৈরি করেন। ও হ্যাঁ ছবির সংগীত পরিচালক (কবীর সুমন) তো আরও গুরুত্বপূর্ণ।’

অনিকেত আরও লেখেন, ‘হবুচন্দ্র রাজা গবুচন্দ্র মন্ত্রীর ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ারের প্রেস কনফারেন্স হল, বাকিদের কথা তো ছেড়েই দিন, সেই অনুষ্ঠানে পরিচালক, ডিওপি, এডিটর, কস্টিউম ডিজাইনার, আর্ট ডিরেক্টর কাউকে ডাকা হলনা কেবল নয়, জানানোও হল না, খবরও দেওয়া হল না।’ অনিকেতের কথায়, সম্ভবত সেই পাঁচতারা হোটেলে যাওয়ার তাঁরা উপযুক্ত নন, এরকমটাই মনে করেছেন।

‘মায়েদের একটা গন্ধ থাকে’
দেব প্রসঙ্গে অনিকেত লেখেন, ‘যে প্রযোজক ২২/২৩ দিনের শ্যুটিং-এ দিন তিনেক হাজির ছিলেন, তিনি বহুবচনে সিনেমা তৈরির কথা বললেন।’ ক্ষোভ উগরে দিয়ে অনিকেত লেখেন, ‘এই ছবির আসোসিয়েট ডিরেক্টার সঞ্জীব দে, যিনি কিছুদিন আগে মারা গেলেন, একবারের জন্য তাঁর নাম উচ্চারণ করাও হল না। প্রতীক চৌধুরি এই ছবির গান রেকর্ডিং-এর কদিন পরেই মারা গিয়েছিলেন, তাঁর নাম মুখেও আনা হল না, যাঁরা গান গেয়েছেন, তাঁদের জানানো হল না। আরও আছে, সে সব বলব। কিন্তু এত কিছুর পরেও বলব, আমরা অনেক পরিশ্রম করে ছবিটা তৈরি করেছি, প্রযোজক টাকা জুগিয়েছেন, তাঁকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।’

এই পুজোয় একগুচ্ছ ছবি মুক্তি পাচ্ছে। তার মধ্যে ‘হবুচন্দ্র রাজা গবু চন্দ্র মন্ত্রী’ ছিল। অন্যতম তবে আচমকায় সিদ্ধান্ত বদলান ছবির প্রযোজক। সিনেমা হলের পরিবর্তে ছবিটি ১০ অক্টোবর মুক্তি পাবে জলসা মুভিজে। তবে অনিকেত প্রসঙ্গে দেবের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।সিনেমা হলের পরিবর্তে ছবিটি ১০ অক্টোবর মুক্তি পাবে জলসা মুভিজে।



Source link

Leave A Reply

Your email address will not be published.