কল্পবিজ্ঞানের মোড়কে সন্তানকে বাঁচানোর জন্য মা-বাবার লড়াই

0 6


হাইলাইটস

  • বিশ্বজুড়ে শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের সৃষ্টির অনুরাগীরা ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছেন।
  • তাঁর অনেক সৃষ্টিকেই কালজয়ী অ্যাখ্যা দেওয়া যায়। ‘বনি’-ও তেমন একটি উপন্যাস।
  • সুরিন্দর ফিল্মস প্রযোজিত ‘বনি’ মুক্তি পাবে আগামী রবিবার, ১০ অক্টোবর।

এই সময়: বিশ্বজুড়ে শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের সৃষ্টির অনুরাগীরা ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছেন। এবং তাঁর অনেক সৃষ্টিকেই কালজয়ী অ্যাখ্যা দেওয়া যায়। ‘বনি’-ও তেমন একটি উপন্যাস। যে সৃষ্টিকে ভিত করে পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় তৈরি করেছেন ছবি ‘বনি’। সুরিন্দর ফিল্মস প্রযোজিত ‘বনি’ মুক্তি পাবে আগামী রবিবার, ১০ অক্টোবর।

পরমব্রতর কথায়, ‘আমার মনে হয়, এই সময় যে ভাবে আমারা বাঁচছি, সব কিছুই প্রযুক্তি নির্ভর। ‘বনি’ পড়লে মনে হয় কম্পিউটার, ই-মেল আসার অনেক আগেই শীর্ষেন্দুবাবু বুঝতে পেরেছিলেন ক্রমশ আমরা কতটা প্রযুক্তি নির্ভর হয়ে পড়বো। শুধু তাই নয়, এখন কিন্তু আমরা প্রতি মুহূর্তে কারও না কারও নজরে সত্যিই আছি। আমরা যে পরিমাণ ব্যক্তিগত তথ্য শেয়ার করি একটি পাসওয়ার্ড দিয়ে, বা মোবাইল ফোন ব্যবহার করার সময় যে ভাবে জিজ্ঞেস করা হয় ছবি বা তথ্যতে অ্যাকসেস দেওয়া হবে কিনা, আবার একই পাসওয়ার্ড ব্যবহার করি বিভিন্ন ওয়েবসাইটে, সেই অর্থে আমাদের ব্যক্তিগত বলে আর কিছু নেই। একটু ভাবলে দেখা যাবে সবই জনসমক্ষে চলে এসেছে। এমন যে ঘটবে, সেটা বহু আগে উনি আঁচ করতে পেরেছিলেন। এবং সে ভাবে উনি ‘বনি’ উপন্যাসটা সাজিয়েছিলেন’।

‘মায়েদের একটা গন্ধ থাকে’
এই নির্যাস নিয়ে সময়োপযোগী একটি ছবি তৈরি করেছেন পরমব্রত। পরিচালক খোলসা করলেন, ‘প্রযুক্তির ব্যবহার আমরা করবোই। প্রযুক্তিকে দূরে সরিয়ে রাখা হবে, সেটা হতে পারে না। সময়ের চাহিদা মেনেই এগিয়ে যেতে হবে আমাদের। তবে মাঝে-মাঝে আমরা প্রযুক্তির দাস হয়ে পড়ি। হয়তো এক শ্রেণির মানুষের মধ্যে এটা বেশি দেখা যায়। এই পরিস্থিতি সম্পর্কেই একটা সাবধানবাণী ‘বনি’ উপন্যাসের মতোই এ ছবিতে রয়েছে। তবে সেটা ছাপিয়েও উপন্যাস আর ছবি দু’টোই মূলত যেটা নিয়ে, বাবা-মা’র কাছে তাদের সদ্যজাত সন্তান সবচেয়ে বড় সম্পদ হয়। জীবনের কেন্দ্রবিন্দু হয়। সেই সন্তানকে বাঁচানোর জন্য বাবা-মা’য়ের যে লড়াই, সেটাই ছবির আসল গল্প। এর উপর প্রযুক্তি বা কল্পবিজ্ঞান এ সবের মোড়ক রয়েছে’।



Source link

Leave A Reply

Your email address will not be published.