‘আরিয়ান কাণ্ডে তাড়া দিয়ে লাভ নেই, হাতে ৬ মাস সময় আছে’, স্পষ্ট জবাব এনসিবি প্রধানের

0 8


Sameer Wankhede on Aryan Khan: নার্কোটিকস কনট্রোল ব্যুরোর জোনাল ডিরেক্টর সমীর ওয়াংখেড়ে স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন তাঁরা সবে Mumbai cruise drug কাণ্ডে কেস ফাইল করেছেন। তদন্তের জন্যে তাঁদের হাতে ৬ মাস সময় রয়েছে। তাঁর এই বক্তব্য সামনে আসার পর থেকেই প্রশ্ন উঠছে, তাহলে কি ৬ মাস জেলেই কাটাতে হবে Aryanকে? শাহরুখ খানের ছেলের পর এবার এই কাণ্ডে গ্রেফতার করা হয়েছে নাইজেরিয়ার এক ড্রাগ ডিলার Chinedu Igwe-কে। তার থেকে Ecstasy-র ৪০টি ট্যাবলেট পাওয়া গেছে। এখনও পর্যন্ত আরিয়ান খান ড্রাগ কাণ্ডে ১৮ জনকে গ্রেফতার করেছে NCB।

একটি নিউজ চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাত্‌কারে Sameer Wankhede জানিয়েছেন গত বছর তাঁর টিম মহারাষ্ট্র এবং গোয়ায় দারুণ কাজ করেছে। ১০০টির বেশি কেসে প্রায় ৩০০টি গ্রেফতার করা হয়েছে। মুম্বইয়ের প্রাণকেন্দ্রে বসে যে সব অর্গানাইজড গ্যাং দীর্ঘ সময় ধরে কাজ করে আসছে তাদের বিরুদ্ধেও কড়া পদক্ষেপ করেছে তাঁর টিম।

অন্যদিকে, আরিয়ান খান ড্রাগ কাণ্ড নিয়ে এবার বিস্ফোরক দাবি করলেন Nationalist Congress Party-র নেতা Nawab Malik। তাঁর দাবি, আজ শুক্রবারই তিনি এমন তথ্য প্রমাণ সবার সামনে নিয়ে আসবেন, যার থেকে প্রমাণ হয়ে যাবে মুম্বইয়ের ক্রুজ থেকে আরিয়ান খানের সঙ্গে গ্রেফতার হওয়া এক ব্যক্তিকে গ্রেফতারির পরেই রেহাই দিয়ে দিয়েছিল NCB। সেই ব্যক্তিকে ছেড়ে দেওয়ার একটাই কারণ তিনি এক বিজেপি নেতার শ্বশুরবাড়ির আত্মীয়।

এখানেই শেষ নয়। মালিকের দাবি এনসিবি মহারাষ্ট্রের ইমেজ খারাপ করার জন্যি এই সব কাজ করছে। কারণ এই রাজ্য বিজেপি শাসিত নয়। ‘রিয়া চক্রবর্তী থেকে দীপিকা পাডুকোন কিংবা আরিয়ান খান। এনসিবি তখনই তত্‌পর হচ্ছে যখন দেখছে পাবলিসিটির সুযোগ রয়েছে। এর মধ্যে বেশিরভাগ কেসই ভুয়ো। কোনও কিছুই পাওয়া যায়নি।’
আরিয়ান কাণ্ডে মুখ খুললেন এনসিপি নেতা! বিজেপি-র পর্দা ফাঁস করার হুমকি
Aryan Khan Drug Case: আরিয়ান কাণ্ডে এবার এনসিবি-র দিকে আঙুল তুললেন মিকা সিং!
বলিউড তারকাদের ত্রাস! টিনসেল টাউনের মাদক যোগ নিয়ে খোলাখুলি সমীর ওয়াংখেড়ে
Aryan Khan Drug Case: বলিউডকে মাফিয়া পাপ্পু বলে কটাক্ষ, আরিয়ান কাণ্ডে মুখ খুললেন কঙ্গনা
অন্যদিকে সমীর ওয়াংখেড়ের বক্তব্য খুবই স্পষ্ট। ‘কারও ব্যক্তিগত ওপিনিয়ন নিয়ে কথা না বলে বরং ফ্যাক্ট বা স্ট্যাটিসটিকস নিয়ে কথা বলা ভালো। গত বছর ১০ মাসে আমরা ১০৫ জনকে গ্রেফতার করেছি। গড়ে প্রতি মাসে ১০ থেকে ১২ জন। আচ্ছা এবার বলুন তো এই ১০৫ জনের মধ্যে কতজন সেলেব্রিটি ছিলেন? আমি বলছি, হাতে গোনা কয়েকজন। এ বছরে এখনও পর্যন্ত ৩১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে কতজন সেলেব্রিটি? এটা তো সবাই জানেন। এটা নিয়েই তো সবাই চর্চায় মেতে থাকেন। আমরা এবছরে এখনও পর্যন্ত ১৫০ কোটি টাকার বেআইনি দ্রব্য বাজেয়াপ্ত করেছি। সেই নিয়ে তো কই কেউ কোনও কথা বলছে না? আজকে মিডিয়া আরিয়ান খানের ঘটনা নিয়ে এত্ত বাড়িবাড়ি করছে। কই জাস্ট ২ দিন আগে যে আমরা ৫ কোটি টাকার ড্রাগস বাজেয়াপ্ত করেছি কোনও মিডিয়া হাউস তো তা নিয়ে লেখালেখি করল না? আমার এক স্টাফ মেম্বর গুরুতর আহত হন একটি নাইজেরিয়ান ড্রাগ র‌্যাকেট ধরতে গিয়ে। একটা মিডিয়া হাউস তো সেই নিয়ে একবারও কিছু লিখল বা বলল না!’



Source link

Leave A Reply

Your email address will not be published.