‘দিব্যা ভারতীর সঙ্গে আমিও গাঁজা খেয়েছি, আফসোস নেই’,আরিয়ানের পাশে সলমনের প্রাক্তন

0 6


মাদককাণ্ডে গ্রেফতার শাহরুখ পুত্রের সমর্থনে মুখ খুলছেন একের পর এক বলিউড তারকা। গত রবিবার দীর্ঘ ১৬ ঘন্টা ধরে জেরা করবার পর আরিয়ান খানকে গ্রেফতার করে কেন্দ্রীয় মাদক নিয়ন্ত্রক সংস্থা। আগেরদিন গোয়াগামী প্রমোদতরী থেকে আটক করা হয়েছিল তারকা পুত্রকে। আরিয়ানের সমর্থনে এবার এগিয়ে এলেন সলমন খানের প্রাক্তন গার্লফ্রেন্ড তথা নব্বইয়ের দশকে বলিউডে সাড়া ফেলে দেওয়া অভিনেত্রী সোমি আলি। 

বৃহস্পতিবার এক ইনস্টাগ্রাম পোস্টে সোমি আলির দরবার মাদক দ্রব্য-এর উপর থেকে নিষেদ্ধাজ্ঞা তুলে নেওয়া উচিত, সেগুলি আইনসম্মত বলে ঘোষণা করা উচিত। এমনকি নিজের মাদক সেবনের কথাও ফলাও করে বলেন সোমি। ‘এমন কোন বাচ্চা রয়েছে যে জীবনে কখনও মাদক নেয়নি? হে ভগবান! আমাকে এটা বলো। বাচ্চাটাকে এবার বাড়ি যেতে দিন। দেহব্যবসার মতো মাদকও কোনওদিনই সমাজ থেকে সরিয়ে দেওয়া যাবে না, এই দুটোকেই আইনসিদ্ধ করবার প্রয়োজন রয়েছে। কেউ তো আর আজীবন সাধুপুরুষ থাকে না, সব বাচ্চাই ভুল করে। আমার যখন ১৫ বছর বয়স আমি গাঁজা খেয়েছিলাম, এরপর আবারও দিব্যা ভারতীর সঙ্গে  আন্দোলন ছবির শ্যুটিংয়ের সময় আমি গাঁজা সেবন করি। আমার কোনও আফসোস নেই’। 




১৯৯৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত আন্দোলন ছবিতে সঞ্জয় দত্ত, গোবিন্দা এবং দিব্যা ভারতীর সঙ্গে অভিনয় করেছিলেন সোমি। প্রয়াত অভিনেত্রী দিব্যা ভারতী, প্রযোজক সাজিদ নাদিয়াদওয়ালার স্ত্রী ছিলেন। ১৯৯৩ সালে বাড়ির ব্যালকনি থেকে পড়ে মৃত্যু হয় দিব্যার। এই মৃত্যু নিয়ে বিতর্ক হয়নি। 

সোমি আরও যোগ করেন, ‘বিচার ব্যবস্থা নিজের দৃষ্টিভঙ্গি প্রমাণ করতে আরিয়ানকে ব্যবহার করেছে, অকারণে এই বাচ্চার কষ্ট পাবার মানেটা কী! এরবদলে বিচার ব্যবস্থার উচিত ধর্ষণকারী, খুনীদের ধরে উপযুক্ত সাজা দেওয়ার। ১৯৭১ সাল থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ড্রাগসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে, আজ পর্যন্ত তারা এঁটে উঠতে পারেনি। শাহরুখ-গৌরীর কথা ভেবেই আমার মন কাঁদছে, আমার প্রার্থনা রইল ওদের জন্য। আরিয়ান তুমি কোনও দোষ করোনি, এবং এর সুবিচার তুমি পাবেই’। 

আরিয়ান গ্রেফতার হওয়ার দিনই মন্নতে ছুটে গিয়েছিলেন সোমি আলির প্রাক্তন প্রেমিক, সলমন খান। হৃতিক রোশনও আরিয়ানের সমর্থনে খোলা চিঠি লিখেছেন। বৃহস্পতিবার মাদককাণ্ডে ১৪ দিনে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানো হয়েছে আরিয়ানকে। 



Source link

Leave A Reply

Your email address will not be published.