মাদককাণ্ডে আরিয়ানের জামিনের শুনানি শুরু, আর্থার রোড জেল নাকি মন্নত? কোথায় ঠাঁই

0 6


মাদককাণ্ডে এনসিবি হেফাজত নয়,শাহরুখ পুত্র আরিয়ান খানের ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজত মুঞ্জর হয়েছে বৃহস্পতিবার। আজ তারকা পুত্রের জামিনের শুনানি চলছে আদালতে। এদিন মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের প্রধান আরএম নেরলিকার এজসাসে এই হাইপ্রোফাইল মামলার শুনানি। স্বভাবতই গোটা দেশের নজর এখন এই মামলাকে ঘিরে। আজ কি জামিনে ছাড়া পাবেন আরিয়ান নাকি আর্থার রোড জেলে হবে শাহরুখ পুত্রের ঠাঁই?

এদিনও আদালতে আরিয়ানের হয়ে সাওয়ার করছেন সতীশ মানেশিন্দে, অন্যদিকে এনসিবির হয়ে আদালতে দলিল পেশ করছেন অ্যাডিশনাল সলিসিটর জেনারেল অফ ইন্ডিয়া, অনিল সিং। এদিন এনসিবির তরফে জানানো হয় আরিয়ান সহ অপর অভিযুক্তদের জামিনের আবেদন ‘ভুল, অস্পষ্ট এবং গ্রহণযোগ্য নয়’। এএসজি-র সাফ কথা, মামলার সারবত্তা বিচার করলে এই আবেদন একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়। তবে সেটা আদালতকে বিচার করতে হবে। এবং আবেদন যদি গ্রহণযোগ্য না হয়, তবে সেটি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনায় গিয়ে লাভ নেই। কিন্তু সেটা আদালতকেই বিচার করতে হবে।




অন্যদিকে আরিয়ানের আইনজীবী সতীশ মানেশিন্দের পালটা দাবি, আরিয়ানের কাছ থেকে কোনও মাদক উদ্ধার হয়নি, তাঁঁর বিরুদ্ধে শুধু মাত্র মাদক সেবনের অভিযোগ রয়েছে। যে হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের কথা এনসিবি উল্লেখ করছে সেটিও মাদক সংক্রান্ত নয়।

আরিয়ান খান ও তাঁর বন্ধু আরবাজ মার্চেন্টকে গত শনিবারই এক বিলাসবহুল ক্রুজ থেকে ৬ গ্রাম গাঁজাসহ গ্রেফতার করেছিল এনসিবি। এরপর আরিয়ানকে জেরা করে পাওয়া তথ্যের উপর ভিত্তি করে অর্চিতকে গ্রেফতার করে এনসিবি। তাঁর কাছ থেকেও মাত্র ২.৬ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার হয়েছে। বুধবার গ্রেফতার করা হয় অর্চিত কুমারকে।

বৃহস্পকিবার নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোর তরফে আরিয়ান সহ আট অভিযুক্তের ১১ই অক্টোবর পর্যন্ত কাস্টডি দাবি করেছিল। তবে সেই আবেদন নাকোচ করে আদালত। এনসিবির রিম্যান্ডের আবেদনকে ‘অস্পষ্ট’ আখ্যা দেন বিচারক। এবং আরিয়ানসহ বাকি সকল অভিযুক্তের ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজত মঞ্জুর করেছে আদালত। আদালতের কথায়, আরিয়ানের থেকে পাওয়া তথ্যের উপর ভিত্তি করে গ্রেফতার অভিযুক্ত মাদকচক্রী অর্চিত কুমারের সঙ্গে আরিয়ানকে জেরা করবার উপযুক্ত সময় ছিল এনসিবির কাছে। কিন্তু সেই সময়কে কাজে লাগায়নি তাঁরা।



Source link

Leave A Reply

Your email address will not be published.