Kangana Ranaut Reaction On Raj Kundra: ‘এই কারণে বলিউডকে নর্দমা বলি’, রাজ কুন্দ্রার পর্ন কাণ্ডের প্রতিক্রিয়ায় কঙ্গনা


Kangana Ranaut on Raj Kundra: রাজ কুন্দ্রা গ্রেফতার হলেন পর্নোগ্রাফির অভিযোগে। ফের একবার বলিউডকে রগড়ে দেওয়ার সুযোগ পেয়ে গেলেন কঙ্গনা রানাওয়াত। সোমবার রাতে অভিনেত্রী শিল্পা শেট্টির স্বামীর গ্রেফতার হওয়ার খবর এবং মঙ্গলবার তাঁর পুলিশ হেফাজতে যাওয়ার খবর চাউর হতেই রুদ্রমূর্তিতে হাজির Kangana Ranaut। কোনও রাখঢাক না করেই বলিউডকে নোংরা নর্দমা বললেন নায়িকা। মঙ্গলবার রাতে বলিউড কলিগ শিল্পা শেট্টির স্বামীর গ্রেফতারি সম্পর্কে কড়া মনোভাব প্রকাশ করলেন কঙ্গনা। বললেন, ‘ঠিক এই কারণেই আমি বলিউড ইন্ডাস্ট্রিকে নর্দমা বলি। যা কিছু চকচক করে সবই যে সোনা হয় না, তা আরও একবার প্রমাণিত। আমি প্রমিস করছি আমার আগামী প্রোডাকশন Tiku Weds Sheru-তে বলিউডের নোংরামি ফাঁস করে দেব। ক্রিয়েটিভ ইন্ডাস্ট্রিতে স্ট্রং ভ্যালু সিস্টেমের ভীষণ প্রয়োজন, দরকার কড়া অনুশাষণেরও।’

Raj Kundra Viral Video: রাজকে প্রথম সন্দেহ করেন কপিল শর্মা! ভাইরাল ভিডিয়ো

Raj Kundra Case Update:পর্ন চক্র থেকে নিজেকে আড়াল করতে এই ফন্দি এঁটেছিলেন রাজ!
সোমবার মুম্বই পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চের প্রপার্টি সেল রাজ কুন্দ্রা সহ মোট ১১ জনকে গ্রেফতার করেছে। মুম্বইয়ের পুলিশ কমিশনার হেমন্ত নাগরালে একটি বিবৃতিতে জানিয়েছেন, তদন্তে দেখা গিয়েছে গোটা ঘটনার প্রধান মাথা রাজ কুন্দ্রা। তাঁর বিরুদ্ধে পুলিশের হাতে যথেষ্ট প্রমাণ রয়েছে।

Raj Kundra Viral Tweet: পর্নোগ্রাফির প্রতি চিরকালই রাজের অমোঘ আকর্ষণ! ভাইরাল পোস্টে কি তারই ইঙ্গিত?

Raj Kundra Arrest Update: পর্ন শ্যুট-শেয়ারে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ! কুন্দ্রাকাণ্ডে নয়া তথ্য পুলিশের হাতে
Raj Kundra Arrest: ‘নগ্ন হয়ে অডিশন দিতে বলেছিলেন’, রাজ কুন্দ্রার বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিনেত্রী
নীতি পুলিশের ভূমিকায় এই প্রথম অবতীর্ণ হলেন না কঙ্গনা রানাওয়াত। আমির খান ও কিরণ রাওয়ের ডিভোর্সের পর ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে তাঁর এক্সপার্ট ওপিনিয়ন শেয়ার করেন কঙ্গনা রানাওয়াত। রানির বক্তব্যে অবশ্য খানিক চালাকি রয়েছে। সরাসরি মিস্টার পারফেকশনিস্টকে চটাতে চাননি কনট্রোভার্সি কুইন Kangana Ranaut। বরং খানিক ঘুরিয়ে ইন্টারকাস্ট বিয়ে সম্পর্কে নিজের ধারণা প্রকাশ করলেন। লিখলেন, ‘আমির খান স্যারের দ্বিতীয় ডিভোর্সের পর একটা কথাই বার বার মনে হচ্ছে। কোনও মুসলমানকে বিয়ে করতে গেলে কেন ধর্ম পরিবর্তন করতেই হবে! ধর্ম পরিবর্তন না করে কি একসঙ্গে থাকা যায় না স্বামী-স্ত্রী হিসেবে! একটা সময় ছিল যখন পঞ্জাবের প্রতিটি পরিবারে এক ছেলেকে হিন্দু এবং এক ছেলেকে শিখ হিসেবে বড় করা হত। একটি পরিবারে কোনও বিবাদ ছাড়াই যদি হিন্দু, জৈন, বৌদ্ধ, শিখ ধর্মাবলম্বীরা বাস করতে পারেন, তাহলে মুসলিমের ক্ষেত্রে তা হতে আপত্তি কোথায়!’



Continue Reading

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.